DMCA.com Protection Status
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৯, ১০ বৈশাখ ১৪২৬

‘নুসরাত হত্যা মিশনে অংশ নেয় ৫ জন’

ফেনী প্রতিনিধি
|  ১৫ এপ্রিল ২০১৯, ১৮:৩৩
ফাইল ছবি
ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসা কেন্দ্রে আলিম পরীক্ষার্থী নুসরাত জাহান রাফিকে (১৮) কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে হত্যা মিশনে পাঁচজন অংশ নেয় বলে জানান পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

সোমবার মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) পরিদর্শক (ওসি) মো. শাহ আলম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে পিবিআই প্রথমে চারজনের কথা বললেও পরবর্তীতে তদন্তে বেরিয়ে এসেছে আরও একজনের নাম। এর মধ্যে উম্মে সুলতানা পপিসহ গ্রেপ্তার হয়েছেন শামীম, জুবায়ের ও জাবেদ। হত্যাকাণ্ডে জড়িত অপর এক ছাত্রীকে দ্রুতই গ্রেপ্তারের আশা করছে পিবিআই।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) পরিদর্শক (ওসি) মো. শাহ আলম বলেন, সরাসরি ক্লিনিং মিশনে অংশ নেয় ৫ জন, অন্যরা তাদের সহযোগিতা করে। এদের মধ্যে ৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকি একজনকে গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান চালানো হচ্ছে।

৬ এপ্রিল শনিবার সকালে আলিম পরীক্ষা দিতে সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসায় যান নুসরাত জাহান রাফি। ওইখানে এক ছাত্রী সহপাঠী নিশাতকে ছাদের উপর কেউ মারধর করেছে এমন সংবাদ দিলে তিনি ছাদে যান। সেখানে মুখোশপরা ৪/৫ জন তাকে অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলার বিরুদ্ধে মামলা ও অভিযোগ তুলে নিতে চাপ দেয়। তিনি অস্বীকৃতি জানালে তারা গায়ে আগুন দিয়ে পালিয়ে যায়।

পরে এ ঘটনায় অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলা ও পৌর কাউন্সিলর মুকছুদ আলমসহ ৮ জনের নাম উল্লেখ করে সোনাগাজী মডেল থানায় মামালা করেন অগ্নিদগ্ধ রাফির বড় ভাই মাহমুদুল হাসান নোমান।

এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়