বাগেরহাটে কিশোরীকে ধর্ষণ

প্রকাশ | ১৫ এপ্রিল ২০১৯, ১৪:৪৬

বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাট সদর উপজেলার বারুইপাড়ায় গেল শনিবার এক এতিম কিশোরী (১২) ধর্ষণের শিকার হয়েছে।

সোমবার দুপুরে শিশুটির ডাক্তারি পরীক্ষা বাগেরহাট সদর হাসপাতালে সম্পন্ন হয়েছে। এর আগে রোববার রাতে মেয়েটির ফুফা রফিকুল ইসলাম দিদার তিনজনকে আসামি করে বাগেরহাট মডেল থানায় একটি মামলা করেছেন।

তবে সোমবার দুপুর পর্যন্ত কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ। অভিযুক্ত নিজাম শেখ (৫০)বারুইপাড়া গ্রামের আমিন শেখের ছেলে।   

মেয়েটির ফুফা জানান, ধর্ষণের শিকার মেয়েটির বাবা প্রায় ১০ বছর আগে ঢাকায় একটি কারখানায় কাজ করা অবস্থায় নিখোঁজ হন। জীবন বাঁচাতে মেয়েটির মা দুই কন্যা সন্তানকে দাদির কাছে রেখে ঢাকায় চলে যান।

সেখানে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা হলে বড় মেয়েটিকে তার কাছে নিয়ে যান। নির্যাতনের শিকার মেয়েটি এলাকাবাসীর আর্থিক সহায়তায় দাদির কাছে থেকে পার্শ্ববর্তী একটি বিদ্যালয়ে সপ্তম শ্রেণিতে পড়তো।

শনিবার বিকেলে মেয়েটি দাদির ঘরে ঘুমাচ্ছিল। এসময় বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে নিজাম শেখ ঘরে ঢুকে মুখ চেপে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। এসময় মেয়েটির ফুফু দরজায় ধাক্কা দিলে নিজাম শেখ কৌশলে পালিয়ে যায়। 

রোববার মেয়েটির ফুফা রফিকুল ইসলাম নিজাম শেখের বাড়িতে গিয়ে ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত নিজাম, তার স্ত্রী ও ছেলে তাকে বেধড়ক মারপিট করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। পরে রোববার রাতে তিনি তিনজনকে আসামি করে মামলা করেন।

বাগেরহাটের পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায় জানান, ধর্ষণের ঘটনায় বাগেরহাট মডেল থানায় মামলা হয়েছে। শিশুটির ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। পুলিশ অভিযুক্তদের আটকের চেষ্টা করছে। 

জেবি