logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯, ১ শ্রাবণ ১৪২৬

বিদ্যালয়ের মাঝ দিয়ে পাকা রাস্তা, ঝুঁকিতে শিক্ষার্থীরা

এম,মনিরুজ্জামান, রাজবাড়ী
|  ০১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:৫২ | আপডেট : ০১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:৪৬
রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার হাউলি কিউটিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঝ দিয়ে চলে গেছে একটি পাকা রাস্তা। রাস্তাটির দুইপাশে রয়েছে শিক্ষার্থীদের পাঠদানের শ্রেণিকক্ষ। এ রাস্তা দিয়ে প্রতিনিয়তই দ্রুতগতিতে চলাচল করছে বিভিন্ন ধরনের যানবাহন। ফলে ওই স্কুলের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা ক্লাসের সময় দুর্ঘটনার ঝুঁকির মধ্যে রয়েছেন।

বিদ্যালয়ের শিক্ষক সূত্র জানায়, ১৯৮৫ সালে এই বিদ্যালয়টি এলাকাবাসীর সহায়তায় গড়ে উঠে। বিদ্যালয়টিতে বর্তমানে প্রায় আড়াই শতাধিক শিক্ষার্থী রয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, বিদ্যালয় সৃষ্টির অনেক পরে রাস্তাটি অপরিকল্পিতভাবে নির্মিত হয়েছে। সে সময় সমস্যার বিষয়টি খেয়াল করা হয়নি। এরপর থেকে ঝুঁকি নিয়েই রাস্তার ওপর প্রতিদিনের অ্যাসেম্বলি ও সমাবেশ করতে হচ্ছে। শিক্ষার্থীরা টিফিনের সময় সেখানেই খেলায় মেতে উঠছে। ফলে অভিভাবকরা তাদের সন্তানদের নিয়ে খুবই দুশ্চিন্তায় রয়েছেন।

গোয়ালন্দ উপজেলা প্রকৌশলীর কার্যালয় সূত্র জানায়, গোয়ালন্দ-রাজবাড়ী শহর রক্ষা বাঁধের জন্য ২০০৩-২০০৪ অর্থবছরে হাউলি কেউটিল গ্রাম থেকে কাটাখালী জিসি টু খানখানাপুর পর্যন্ত তিন কিলোমিটারের রাস্তাটি বিদ্যালয়ের ভেতর দিয়ে নির্মিত হয়। এখন এলাকাবাসী যদি বিদ্যালয়ের পেছন দিকে জায়গা দেয় তাহলে বিকল্প রাস্তা করা সম্ভব। তবে সেটাও সময়সাপেক্ষ ব্যাপার। এর মধ্যে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ দুটি ভবনের পাশে সীমানা প্রাচীর নির্মাণের জন্য বরাদ্দ চেয়ে আবেদন করেছে। বরাদ্দ পেলে দ্রুত সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করা হবে।

বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক গোলাম ইয়াছিন আরটিভি অনলাইনকে জানান, রাস্তাটির কারণে সবসময়েই দুশ্চিন্তায় থাকতে হয়। কোমলমতি শিশুদের বাধা দিয়ে রাখা যায় না। তারা রাস্তার ওপর খেলাধুলা করতে চলে যায়। এরপরও দুর্ঘটনা যাতে না ঘটে সেজন্য শিক্ষার্থীদের নজরে রাখা হচ্ছে। সেইসঙ্গে বিকল্প রাস্তা তৈরি করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করা হয়েছে।

বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা পর্ষদের সভাপতি আসজাদ হোসেন আরটিভি অনলাইনকে জানান, দুই পাশে বিদ্যালয়ের ভবন রেখে মাঝ দিয়ে পাকা সড়ক নির্মাণ করাটা মোটেও ঠিক হয়নি। শিশুরা সুযোগ পেলেই রাস্তাটির ওপর খেলায় মেতে উঠে। তাছাড়া বিদ্যালয়ের দুই পাশেই ভবন থাকার কারণে শিশুদের শ্রেণিকক্ষে যাওয়ার সময়ও রাস্তা পার হতে হয়। এতে যেকোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

তিনি আরও বলেন, শিশুদের নিরাপত্তায় বিদ্যালয় ভবনের পেছন দিয়ে সড়ক তৈরি ও সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন জানানো হয়েছে।

গোয়ালন্দ উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুবায়েত হায়াত শিপলু আরটিভি অনলাইনকে বলেন, বিষয়টি আমাদের নজরে এসেছে। সমস্যাটি সমাধানে দ্রুত উদ্যোগ নেয়া হবে।

আরও পড়ুন

জেবি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়