শ্রমিক আন্দোলনে উস্কানিদাতারা শনাক্ত: শিল্প পুলিশের এসপি

প্রকাশ | ১৫ জানুয়ারি ২০১৯, ১৯:১৫ | আপডেট: ১৫ জানুয়ারি ২০১৯, ১৯:৪৮

সাভার প্রতিনিধি
ঢাকা শিল্পাঞ্চলের পুলিশ সুপার সানা শামিনুর রহমান শামীম

সাভার আশুলিয়ায় শিল্প কারখানায় মজুরি কাঠামো নিয়ে শ্রমিক আন্দোলনে উস্কানি দেয়া দুষ্কৃতকারিরা শনাক্ত হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত প্রক্রিয়া নেয়া হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন ঢাকা শিল্পাঞ্চলের পুলিশ সুপার সানা শামিনুর রহমান শামীম।

মঙ্গলবার বিকেলে সাভার আশুলিয়ার শিল্প কারখানার পরিস্থিতি নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে সাংবাদিকদের তিনি এক কথা বলেন।

আশুলিয়া শিল্প পুলিশের এসপি আরও বলেন, শিল্পাঞ্চলে কাজের পরিবেশ ফিরে এসেছে এবং শতভাগ উৎপাদন চলছে। যে কোনও ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে সব ধরনের সড়কের পাশে প্রস্তুত রাখা হয়েছে জলকামান ও সাজোয়া যান।

তিনি বলেন, নতুন মজুরি কাঠামোকে সাধুবাদ জানিয়ে সাভার ও আশুলিয়ায় সব কারখানায় শ্রমিকরা কাজে যোগ দিয়েছেন। পাশাপাশি আন্দোলনের সময় নিরাপত্তার স্বার্থে যে দু-চারটি কারখানা বন্ধ রেখেছিলেন মালিকরা, সেসব কারখানাও খুলে দেয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহ্বানে সাভার ও আশুলিয়া শিল্পাঞ্চলের পোশাক শ্রমিকরা কাজে যোগ দিয়েছে। কারখানাগুলোতে উৎপাদন স্বাভাবিক রয়েছে বলেও জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এছাড়া শিল্পাঞ্চলে যে কোনও ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে বিভিন্ন পয়েন্টে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সকাল থেকে সাভার ও আশুলিয়ার পোশাক কারখানা ঘুরে দেখা গেছে, শ্রমিকরা দল বেঁধে কারখানায় প্রবেশ করেছেন। প্রতিটি কারখানায় শ্রমিকরা স্বাভাবিক দিনের মতোই চালাচ্ছে উৎপাদন।

এদিকে, সকাল থেকে এখন পর্যন্ত কোথাও কোন কর্মবিরতি, কারখানায় প্রবেশের পর শ্রমিকদের বের হয়ে যাওয়াসহ শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষের খবর পাওয়া যায়নি। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে সাভার-আশুলিয়া শিল্পাঞ্চলের বিভিন্ন পয়েন্টে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়া টঙ্গী-আশুলিয়া-ইপিজেড সড়কের বাইপাইল থেকে আশুলিয়া বাজার পর্যন্ত যানচলাচল সীমিত করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

সকালে ঢাকা জেলার পুলিশ সুপার শাহ মিজান শফিউর রহমান আশুলিয়ার জামগড়া এলাকা পরিদর্শন করে বলেন, শ্রমিকরা কাজে যোগ দিয়েছে। এখন কোনও সমস্যা নেই।

পি