গোপালগঞ্জে যাত্রীবাহী বাস-থ্রি হুইলারের সংঘর্ষ, নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১২

প্রকাশ | ২০ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৯:৫৭ | আপডেট: ২০ ডিসেম্বর ২০১৮, ২২:২৪

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি

গোপালগঞ্জে যাত্রীবাহী বাস ও থ্রি-হুইলারের মুখোমুখি সংঘর্ষে শিশু ও মহিলাসহ ১২ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ২০ জন। 

আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৫টার দিকে শহর সংলগ্ন হরিদাসপুর ব্রিজ এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।  

গোপালগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) গোলাম ফারুক বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নিহতদের ১০ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। এরা হলেন- গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার ডুমদিয়া গ্রামের ঝিলু গাজীর ছেলে মোর্শেদ গাজী (৫৫), তে-বাড়ীয়া গ্রামের কাশেম শেখের দু’ছেলে জানে আলম (৩৭), আকাব্বার শেখ (৩৩), শুকতাইল গ্রামের ফিরোজ মোল্লার ছেলে থ্রি-হুইলার চালক রাজিব মোল্লা (২৬), চন্দ্র দিঘলীয়া গ্রামের সলেমান সিকদারের ছেলে জগলু সিকদার (৩০), আব্বাস মোল্লার ছেলে সাদ্দাম মোল্লা (২৫), শুকতাইলের রং-মিস্ত্রী আল-আমিনের ছেলে নয়ন শেখ (১১), মেয়ে মরিয়ম খানম (৮), শ্যালিকা মেঘলা (৯) ও শাশুড়ি রেনু বেগম (৪৫)।  

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ঢাকা থেকে খুলনাগামী গোল্ডেন লাইন পরিবহনের এটি যাত্রীবাহী বাস ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের ওই স্থানে এসে পৌঁছলে গোপালগঞ্জ থেকে চন্দ্র দিঘলীয়াগামী যাত্রীবাহী একটি থ্রি-হুইলরের মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে। এতে বাস ও থ্রি-হুইলার দুটোই মহাসড়ক থেকে পার্শ্ববর্তী খাদে গিয়ে পড়ে। 

ঘটনার খবর পেয়ে গোপালগঞ্জ সদর থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌছায় এবং মরদেহ উদ্ধার করে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়। 
এদিকে ঘটনাস্থল থেকেই সাদ্দাম মোল্লার মরদেহ তার স্বজনরা নিয়ে যায় বলে জানিয়েছেন পুলিশ এবং হাসপাতালে নেয়ার পরপরই জগলু সিকদারের মরদেহ তার স্বজনরা নিয়ে যায় বলে জানান হাসপাতালের ডেপুটি ডিরেক্টর ফরিদুল ইসলাম। 

জেবি/এসএস