• ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
logo

চাঁপাইনবাবগঞ্জে নেসকো ও পল্লী বিদ্যুৎ কর্মীদের সংঘর্ষ, গাড়ি ভাঙচুর 

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ০৯ জুন ২০২৪, ০৮:২৬
ছবি : আরটিভি

বিদ্যুৎ বিতরণকারী দুই প্রতিষ্ঠান নেসকো ও পল্লী বিদ্যুতের কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষে কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে। ভাঙচুর করা হয়েছে বেশ কয়েকটি গাড়ি।

শনিবার (৮ জুন) দুপুর ১২টার দিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার নয়াগোলা আতাহার বুলনপুর এলাকায় বিদ্যুতের সরবরাহ লাইন নির্মাণকাজ ঘিরে দুটি প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, উভয় পক্ষ প্রথমে বাগবিতণ্ডা এবং পরে শতাধিক লোক সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এ সময় তারা লাঠি ও রড নিয়ে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও ইটপাটকেল ছুড়তে থাকে। এক পর্যায়ে নেসকোর কর্মীরা চালকলগুলোর ভেতরে ঢুকে আত্মরক্ষা করেন।

আধ ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষ চলাকালে সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পুলিশের সামনেই ঘটে গাড়ি ভাঙচুর এবং লাঠি-রড হাতে ধাওয়া ও ইটপাটকেল ছোড়ার ঘটনা। পরে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ বিষয়ে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ভারপ্রাপ্ত মহাব্যবস্থাপক রেজাউল করিম জানান, মহারাজপুরে থাকা পল্লী বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রের লাইন নির্মাণের জন্য তারা কাজ করছিলেন। নেসকোর এলাকায় হওয়ায় তাদের লাইনে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রাখার জন্য চিঠি দেয়া হয়েছিল। শনিবার সকালে লাইনের নির্মাণ কাজ করতে গেলে, লাইন বন্ধ না রেখে উল্টো নেসকোর কর্মীরা বাধা দেয়। এক পর্যায়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

সংঘর্ষকালে পল্লী বিদ্যুতের একটি পিকআপ ও মোটরসাইকেল ভাঙচুর ও বেশ কয়েকজন কর্মী আহত হন বলে দাবি করেন তিনি।

অপরদিকে নেসকো, চাঁপাইনবাবগঞ্জের নির্বাহী প্রকৌশলী ওলিউল আজিম বলেন, আমাদের সঞ্চালন লাইনের পাশাপাশি পল্লী বিদ্যুতের সঞ্চালন লাইন করা নিয়ে আমাদের আপত্তির কথা তাদেরকে পত্রের মাধ্যমে আগেই জানিয়েছিলান। বিষয়টি নিয়ে দুই প্রতিষ্ঠানের মধ্যে পত্র আদানপ্রদানের মধ্যেই পল্লী বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ লাইন নির্মাণ কাজ শুরু করে।

আমাদের এক লাইনম্যানকে জোর করে পোলে তুলে লাইন বন্ধ করার জন্য চাপ দিচ্ছিল তারা। এ নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে নেসকোর তিনটি গাড়ি ভাঙচুর ও আমাদের বেশ কয়েকজন কর্মী আহত হয়েছেন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর থানার ওসি মিন্টু রহমান বলেন, নেসকো ও পল্লী বিদ্যুতের কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ। এ ঘটনায় এখনও কোনো পক্ষ থানায় অভিযোগ বা মামলা করেনি।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক একেএম গালিভ খাঁন বলেন, ভুল-বোঝাবুঝির কারণে দুটি সংস্থার লোকজনের মধ্যে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে। বিদ্যুতের মতো জরুরি বিষয় নিয়ে দ্বন্দ্ব থাকা ঠিক না। উভয় পক্ষকে ডাকা হয়েছে। সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে আশা করি।

মন্তব্য করুন

daraz
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়
আরও পড়ুন
বাজেট সংস্কার প্রস্তাব পাসে আর্জেন্টিনায় বিক্ষোভ-সংঘর্ষ
পিকআপভ্যান-মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২
ট্রাক-মোটর সাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষে স্কুলছাত্র নিহত
মসজিদে মাইকিং করে সংঘর্ষ, বৃদ্ধা নিহত