Mir cement
logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

দৌলতদিয়ায় ঢাকামুখী যাত্রীর ঢল যেন থামছেই না

দৌলতদিয়ায় ঢাকামুখী যাত্রীর ঢল যেন থামছেই না
ঢাকামুখী যাত্রীর ঢল

ঈদের ছুটি শেষ হয়েছে তিন দিন আগে, তবুও দৌলতদিয়ায় থামছে না যাত্রীর ঢল। ফেরি ও লঞ্চে তিল ধরনের ঠাই নেই।

সোমবার (৯ মে) সকাল থেকে দৌলতদিয়ায় যাত্রীদের ঢল নামে। এখনও কর্মস্থলে যোগ দিতে ঢাকায় ফিরছেন কর্মজীবীরা। গত এক সাপ্তাহ ধরে দৌলতদিয়া ফেরি ঘাটে বাস ও ট্রাক স্বাভাবিকভাবে পার হতে পারছে না।

ঘাটে পর্যাপ্ত পরিমাণ ফেরি থাকলেও যানবাহনের চাপ বেশি থাকার কারণে ঘাটের জিরো পয়েন্ট থেকে মূল রাস্তায় ৬-৭ কিলোমিটার গাড়ির দীর্ঘ সিরিয়াল দেখা যায়। রাস্তায় গাড়ির দীর্ঘ সিরিয়াল থাকায় অধিকাংশ যাত্রীরা পায়ে হেটে বা অটোতে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে ফেরি ঘাটে এসেছেন। এই সময় ঘাটের পন্টুনে অপেক্ষা করছেন হাজার হাজার যাত্রী। ফেরি আসার সঙ্গে সঙ্গেই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যে যেভাবে পারছেন লাফিয়ে ফেরিতে উঠছেন। যাত্রীর চাপে ফেরিতে তিল ধারণের ঠাঁই নেই।

তবে প্রতিদিন ভোরের দিকে যাত্রীর চাপ কম থাকায় তখন প্রচুর গাড়ি পার হয়। সোমবার দুপুর ১টার দিকে দৌলতদিয়ার ৫নং ফেরিঘাটে মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া থেকে ছেড়ে আসে বীরশ্রেষ্ঠ মো. রুহুল আমিন ফেরি। দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে ভেড়ার আগেই ফেরিটিতে হাজার হাজার যাত্রী লাফিয়ে ফেরিতে উঠতে শুরু করে। এতে ফেরিতে আগে থেকেই থাকা যানবাহগুলো নামতে দীর্ঘসময় লেগে যায়। মাত্র দুটি গাড়ি ছাড়া পুরো ফেরিতে ছিল যাত্রীতে পরিপূর্ণ।

বিআইড‌ব্লিউ‌টি‌সির দৌলত‌দিয়া ঘাট শাখার ব্যাবস্থাপক প্রফুল্ল চৌহান আরটিভি নিউজকে জানিয়েছেন, দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে বর্তমানে যাত্রী ও যানবাহন পারাপারের জন্য ২০টি ফেরি চলছে। গোয়ালন্দ ঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ স্বপন কুমার মজুমদার জানান, দৌলত‌দিয়া ফে‌রিঘাট এলাকায় যাত্রীদের নিরাপত্তায় বিপুলসংখ্যক পু‌লিশ সদস্য কাজ কর‌ছে।

তিনি আরও জানান, গত পাঁচ দিন ধরে এ ঘাট দিয়ে প্রতিদন ফেরি ও লঞ্চে করে দুই লাখের বেশি যাত্রী পার হয়েছে।

আর কতদিন এই রকম ঢাকামুখী যাত্রীর চাপ থাকবে, তা বলা যাচ্ছে না। তবে যাত্রী পার করে বিআইডাব্লিউটিসির ভালো আয়ও হচ্ছে বলে জানান কর্মকর্তারা।

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS