Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ২২ মে ২০২২, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

শরণখোলায় লোকালয়ে বাঘ, আতঙ্কে গ্রামবাসী

শরণখোলার লোকালয়ে বাঘ, আতঙ্কে গ্রামবাসী
ফাইল ছবি

বাগেরহাটের শরণখোলায় আবারও সুন্দরবনের একটি বাঘ হানা দিয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে সুন্দরবন থেকে ২ কিলোমিটার দূরে শরণখোলা উপজেলার খেজুরবাড়িয়া গ্রামের শাহিন খান নিজ ঘেরের মধ্যে বাঘটিকে দেখতে পান। বাঘটি শাহিন খানের ঘেরের মধ্যে শোয়া ছিল।

বনরক্ষীদের একটি দল গ্রামবাসীকে সঙ্গে নিয়ে টহল দিচ্ছে। ভোলা নদী ভরাট হওয়ার কারণে গত একমাস ধরে বাঘ লোকালয়ে ঢুকে পরার খবর পাওয়া যাচ্ছে। এ ঘটনায় গ্রামবাসীর মধ্যে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।

উপজেলার ধানসাগর ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার মো. আবুল হোসেন খান জানান, সুন্দরবন থেকে প্রায় দুই কিলোমিটার দূরত্বে তাদের মাছের ঘের। তার ছেলে মো. শাহিন খান রাত সাড়ে ৯টার দিকে মাছের ঘের পাহারা দিতে যান। এ সময় একটি বাঘকে ঘেরের মধ্যে দেখতে পান। সঙ্গে সঙ্গে ছেলের ডাক-চিৎকারে তিনি এগিয়ে এলে বাঘটি দৌড়ে পালিয়ে যায়। তবে বাঘটি বনে ফিরে গেছে কি না, তা তিনি নিশ্চিত করে বলতে পারেননি। এরপর থেকে রাতভর গ্রামবাসী মিলে পাহারা দিয়েছেন।

বন বিভাগের ধানসাগর স্টেশন কর্মকর্তা মো. আবদুস সবুর জানান, তারা খবর পেয়ে কমিউনিটি পেট্রোলিং গ্রুপ (সিপিজি), ভিলেজ টাইগার রেসপন্স টিম (ভিটিআরটি) ও এলাকাবাসীদের নিয়ে ওই গ্রামসহ আশপাশের এলাকায় পাহারা দিচ্ছেন। বাঘটি লোকালয়ে পাওয়া গেলে নিরাপদে ফিরিয়ে দেয়া হবে। ভোলা নদী ভরাট হয়ে গ্রামের সাথে মিশে যাওয়ার কারণে প্রায়ই বন্যপ্রাণী লোকালয়ে ঢুকে পরার খবর পাওয়া যাচ্ছে বলে তিনি জানান। তবে বন্যপ্রাণী যাতে মারা না পরে সে ব্যাপারে তারা সব সময় সতর্ক রয়েছেন।

সুন্দরবন পূর্ব বনবিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক ( এসিএফ) শহিদুল ইসলাম হাওলাদার শুক্রবার দুপুরে এই প্রতিবেদককে জানান, গত রাতের ঘটনার পর থেকে ঘটনাস্থল ও এর আশপাশ এলাকায় বনবিভাগের পক্ষ থেকে নজরদারীতে রাখা হয়েছে। তবে এখনও বাঘটির কোন খবর পাওয়া যায়নি। মাটি শুকনো হওয়ায় বাঘের পায়ের চিহ্নও পাওয়া যায়নি।

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS