logo
  • ঢাকা রবিবার, ২৬ জানুয়ারি ২০২০, ১৩ মাঘ ১৪২৭

মসজিদে টাইলস লাগিয়ে দেন ক্যাপ্টেন তানভীর

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট, পটুয়াখালী
|  ১৫ জুন ২০১৭, ১৭:০৭ | আপডেট : ১৫ জুন ২০১৭, ১৭:২৫
রাঙামাটিতে পাহাড় ধসে হতাহতদের উদ্ধার করতে গিয়ে জীবন দিলেন ক্যাপ্টেন তানভীর সালাম শান্ত। তার গ্রামের বাড়ি পটুয়াখালীর বাউফলের সিংহেরকাঠীতে সবার কাছেই ছিলেন তিনি আদর্শ।

তানভীর এলাকায় আসলে সবার সঙ্গেই মিশতেন। খোঁজ খবর নিতেন সবার।

এবার রমজানের আগে তিনি গ্রামের মসজিদে টাইলস লাগিয়ে দেন এবং ইফতারি করানোর জন্য টাকাও পাঠান।

এসব কিছুই আজ স্মৃতি। এ মসজিদের মুসল্লিরা ভাবতেও পারেননি তাদের ছেড়ে এতো আগেই চলে যাবেন ক্যাপ্টেন তানভীর।  

এ মসজিদ আছে এবং থাকবে। মুসল্লিরা আসবেন নামাজ আদায় করতে। কিন্তু ফিরে আসবেন না ক্যাপ্টেন তানভীর। তার গ্রামের বাড়িতে এখন শুধু শোকের ছায়া।

এদিকে, নাতির মৃত্যুর শোক সইতে না পেরে বাকশক্তি হারিয়ে আজ (বৃহস্পতিবার) সকাল ১০টায় না ফেরার দেশে চলে গেলেন বৃদ্ধ দাদা আবদুল আজিজ মোল্লাও (৯০)। ফুফু আলেয়া, সুফিয়াসহ নিকট আত্মীয়-স্বজন ও প্রতিবেশিদের আহাজারিতে ভারি হয়ে উঠছে সিংহেরকাঠী গ্রাম।

ক্যাপ্টেন তানভীর সালাম শান্ত পটুয়াখালী জেলার বাউফল উপজেলার কালিশুরি ইউনিয়নের সিংহেরকাঠী গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিলম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। আবদুস সালাম মোল্লা ও ফাতেমা বেগম দম্পতির একমাত্র পুত্র সন্তান তানভীর। তাদের এক মেয়েও রয়েছে।

তানভীর ঢাকা নটরডেম কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করে ২০০৯ সালে সেনাবাহিনীতে কমিশনার পদে চাকরি নেন।

ক্যাপ্টেন তানভীর ২০১৬ সালের ১০ অক্টোবর জয়পুরহাট জেলার মেয়ে নাজিয়া সুলতানাকে বিয়ে করেন এবং বাবা-মা ও স্ত্রীকে নিয়ে ঢাকা’র মাটিকাটা এমইএস’র থাকতেন।

গেলো বছর আইভেরিকোস্টে সড়ক দুর্ঘটনায় একটি পা ভেঙ্গে যায় ক্যাপ্টেন তানভীরের। সুস্থ হবার পর মাত্র কয়েক দিন হয় ফের কর্মস্থলে ফিরে আসেন তিনি।

মঙ্গলবার দুপুরে ক্যাপ্টেন তানভীরের মৃত্যুর খবর শোনার পর থেকেই বাড়িতে ছুটে আসতে থাকেন আত্মীয়-স্বজন ও প্রতিবেশিরা।

জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • দেশজুড়ে এর সর্বশেষ
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়