Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

চা উৎপাদনে নতুন রেকর্ড

চা উৎপাদনে নতুন রেকর্ড
চা

আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এবং চা-শিল্পে সরকারের উল্লেখযোগ্য উন্নয়ন সাধনের ফলে দেশে চায়ের উৎপাদন বেড়েই চলেছে। এবার দেশে উৎপাদন হয়েছে রেকর্ড পরিমাণ চা।

সঠিক ব্যবস্থাপনার ফলে করোনাকালেও ২০২১ সালে দেশের ১৬৭টি চা বাগান এবং ক্ষুদ্রায়তন চা বাগান থেকে রেকর্ড ৯৬ দশমিক ৫০৬ মিলিয়ন কেজি চা উৎপাদন হয়েছে। যা এ যাবতকালের সর্বোচ্চ উৎপাদন। বাংলাদেশ চা গবেষণা কেন্দ্র (বিটিআরআই) ও বাংলাদেশ চা বোর্ড সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বাংলাদেশ চা গবেষণা ইনস্টিটিউট সূত্রে জানা গেছে, ২০২০ সালে দেশে ৮৬ দশমিক ৩৯৪ মিলিয়ন কেজি চা উৎপাদন হয়; যা গত ২০২০ সালের চেয়ে ১০ দশমিক ১১১ মিলিয়ন কেজি বেশি চা উৎপাদন হয় ২০২১ সালের ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত। শুধু উত্তরাঞ্চলে সমতলের চা বাগান ও ক্ষুদ্র চা চাষ থেকেও ২০২১ সালে রেকর্ড পরিমাণ ১৪ দশমিক ৫৪ মিলিয়ন কেজি চা জাতীয় উৎপাদন হয়েছে; যা ২০২০ সালে ছিল ১০ দশমিক ৩০ মিলিয়ন কেজি।

এ ছাড়া ২০১৯ সালে দেশে রেকর্ড পরিমাণ ৯৬ দশমিক ৬৯ মিলিয়ন কেজি চা উৎপাদিত হয়েছিল। গত বছর পর্যাপ্ত বৃষ্টি হওয়ায় মৌলভীবাজার জেলা তথা সিলেট বিভাগের চা বাগানগুলো ভরে উঠে সবুজে সবুজে। দুই হাত ভরে পাতা তোলার কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন শ্রমিকরা। প্রায় ২৪ ঘণ্টাই চালু রাখতে হয় চায়ের কারখানা। এতে সাশ্রয় হয়েছে সরকারের ফরেন কারেন্সি। আর উৎপাদন বাড়লে আবারও রপ্তানি হবে দেশের চা। অর্জিত হবে বৈদেশিক মুদ্রা।

বাংলাদেশ টি ট্রেডার্স অ্যান্ড প্লান্টারস অ্যাসোসিয়েশন-এর সাধারণ সম্পাদক জহর তরফদার আরটিভি নিউজকে জানিয়েছেন, উৎপাদিত এ চায়ের নিলাম এখন সরাসরি শ্রীমঙ্গলে হওয়ায় চায়ের গুণগত মান নষ্ট হচ্ছে না। আর গুণগত মান ঠিক রেখে উন্নয়নে ধারা অব্যাহত রাখা গেলে ভবিষ্যতে বাংলাদেশে চায়ে আসবে স্বর্ণযুগ।

বাংলাদেশ চা সংসদ সিলেট অঞ্চলের ব্রান্স চেয়ারম্যান জি এম শিবলী আরটিভি নিউজকে জানিয়েছেন, এসব চায়ের দুই-তৃতীয়াংশ উৎপাদন হয় মৌলভীবাজারের ৯২টি চা বাগানে। সংশ্লিষ্ট চা বাগান কর্তৃপক্ষ ও চা বোর্ডের নানামুখী পদক্ষেপের কারণে চলতি বছরে উৎপাদন বাড়তে থাকে। অনুকূল আবহাওয়া বজায় থাকলে উৎপাদন লক্ষমাত্রাও ছাড়িয়ে যাবে।

শ্রী গবিন্দপুর চা বাগানের মালিক মো. মহসিন মিয়া আরটিভি নিউজকে বলেন, মৌসুমের শুরু থেকে চায়ের উপযোগী বৃষ্টিপাত, প্রয়োজনীয় সূর্যের আলো, অনুকূল আবহাওয়া ও বাংলাদেশ চা বোর্ডের বেশ কিছু উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের ফলে চায়ের উৎপাদন বেড়েছে। এ বছর উৎপাদনে নতুন রেকর্ড সৃষ্টির সম্ভাবনাও রয়েছে।

বাংলাদেশ চা বোর্ডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মো. আশরাফুল ইসলাম আরটিভি নিউজকে জানিয়েছেন, কোভিড পরিস্থিতিতেও উৎপাদনের এ ধারাবাহিকতা থেকে এটাই প্রতীয়মান হয় যে, চা শিল্পের সক্ষমতা অনেকাংশে বেড়েছে। কোভিড পরিস্থিতিতেও প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় দেশের সব চা বাগানের সার্বিক কার্যক্রম স্বাভাবিক ছিল। ২০২১ সালে দেশের চা উৎপাদন অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গিয়েছে।

এমআই/টিআই

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS