Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ২৯ জানুয়ারি ২০২২, ১৫ মাঘ ১৪২৮

পিরোজপুর প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ১৩ জানুয়ারি ২০২২, ১৫:২৭
আপডেট : ১৩ জানুয়ারি ২০২২, ১৫:৪৮
discover

যুবলীগ কর্মীকে কুপিয়ে হাতের কবজি বিচ্ছিন্ন

যুবলীগ কর্মীকে কুপিয়ে হাতের কবজি বিচ্ছিন্ন
ফাইল ছবি

পিরোজপুরে আওয়ামী লীগ আয়োজিত বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় যোগদান করাকে কেন্দ্র করে কদমতলার যুবলীগ কর্মীকে কুপিয়ে হাতের কবজি বিচ্ছিন্ন করেছে প্রতিপক্ষরা। এ সময় আরও একজনকে কুপিয়ে আহত করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) দুপুরে সদর উপজেলার কদমতলা ইউনিয়নের উত্তর কদমতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পরে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে যুবলীগ কর্মী নাদিম খানকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা।

আহত ব্যক্তিরা হলেন, যুবলীগ নেতা নাদিম খান (৩২) সদর উপজেলার তেজদাসকাঠী এলাকার নজরুল ইসলাম খানের ছেলে ও মাসুদ শেখ (২৫) উত্তর কদমতলা এলাকার আব্দুর রহিম শেখের ছেলে।

আহত মাসুদ শেখ জানান, বুধবার (১২ জানুয়ারি) বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের আলোচনা সভা ছিল। সেই সভায় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হানিফ খানের নেতৃত্বে যোগদান করি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শিহাব হোসেন ও তার ভাতিজা বায়জীদ লোকজন নিয়ে আমাদের ওপর হামলা চালায়।

কদমতলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হানিফ খান বলেন, স্থানীয় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের লোকজন বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের আলোচনা সভা সফল করার জন্য যোগদান করে। বুধবার (১২ জানুয়ারি) লোক বেশি থাকায় তাদের ওপর হামলা করতে পারেনি। তাই আজ বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালিয়েছে। নাদিমের হাতের কবজি বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে আনার পরে খুলনা পাঠানো হয়েছে। নাদিমের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ২০ থেকে ৩০টি কোপ দেওয়া হয়েছে।

পিরোজপুর জেলা হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. আরিফ হাসান জানান, দুজনকে আহত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছে। যার মধ্যে একজনের হাতের কবজি বিচ্ছিন্ন থাকায় গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অন্যজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ভর্তি করা হয়েছে।

পিরোজপুর সদর থানার অফিসার (ওসি) আ.জা.মো. মাসুদুজ্জামান জানান, এ ঘটনার পরপরই পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। থানায় কোনো লিখিত অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জিএম/এসকে

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS