Mir cement
logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২২, ১১ মাঘ ১৪২৮
discover

হিলি স্থলবন্দরে রাজস্ব ঘাটতি ৩৩ কোটি টাকা

হিলি স্থলবন্দরে রাজস্ব ঘাটতি ৩৩ কোটি টাকা
ফাইল ছবি

দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরে চলতি ২০২১-২২ অর্থ বছরের গত ৬ মাসে রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) ২২৭ কোটি ৮২ লাখ টাকা রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্য মাত্রা বেধে দিয়ে ছিল। নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে রাজস্ব ঘাটতির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩৩ কোটি চার লাখ টাকা।

রোববার (৯ জানুয়ারি) বিকেলে হিলি কাস্টমসের রাজস্ব কর্মকর্তা নুরুল আলম খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

হিলি স্থল শুল্ক স্টেশন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরে হিলি স্থলবন্দর থেকে ৪৫৩ কোটি ৭০ লাখ টাকা রাজস্ব আহরণের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। সে হিসাবে অর্থবছরের প্রথম মাসে (জুলাই) বন্দর থেকে রাজস্ব আহরণের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৩৬ কোটি ৩৫ লাখ টাকা। এর বিপরীতে আহরণ হয়েছে ৩৩ কোটি ৫৮ লাখ টাকা। আগস্ট মাসে ৪৩ কোটি ৯৬ লাখ টাকা লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে আহরণ হয়েছে ২৬ কোটি ৬৯ লাখ টাকা। সেপ্টেম্বর মাসে ৩৭ কোটি ৯৩ লাখ টাকা লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে আহরণ হয়েছে ৩৫ কোটি ১৯ লাখ টাকা। অক্টোবর মাসে ৩৯ কোটি দুই লাখ টাকা লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে আহরণ হয়েছে ৩৪ কোটি ৩১ লাখ টাকা।

নভেম্বর মাসে ৪০ কোটি ৩২ লাখ টাকা লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে আহরণ হয়েছে ৩২ কোটি ৫৪ লাখ টাকা। ডিসেম্বর মাসে ৩০ কোটি ২৪ লাখ টাকা লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে আহরণ হয়েছে ৩২ কোটি ৪৬ লাখ টাকা।

হিলি কাস্টমসের রাজস্ব কর্মকর্তা নুরুল আলম খান আরটিভি নিউজকে জানান, চলতি ২০২১-২২ অর্থ বছরে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২২৭ কোটি ৮২ লাখ টাকা। আদায় হয়েছে ১৮৯ কোটি ২০ লাখ টাকা। হিলি স্থলবন্দরে সরকারি রাজস্ব বৃদ্ধির লক্ষ্যে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। এই বন্দরে ব্যবসায়ীদের সকল প্রকার ব্যবসায়ী সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করেছি। আশা করছি নতুন বছর শুরু থেকে এই বন্দরে রাজস্ব আদায় বৃদ্ধি পাবে।

তিনি আরও জানান, রাজস্ব আহরণ নির্ভর করে বন্দর দিয়ে পণ্য আমদানি-রপ্তানির ওপর। সেই সঙ্গে পণ্য আমদানি-রপ্তানি বাড়ানোর মধ্য দিয়ে রাজস্ব আহরণ বাড়ানোর লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছি। বর্তমানে যে ধারায় বন্দর দিয়ে পণ্য আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম চলছে তাতে অর্থবছরের বাকি সময়ে নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা অর্জন সম্ভব হতে পারে।

জিএম/এসকে

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS