Mir cement
logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২২, ১৩ মাঘ ১৪২৮
discover

পুলিশ কোয়ার্টারে তরুণীকে ধর্ষণ, সেই কনস্টেবল বরখাস্ত

পুলিশ কোয়ার্টারে তরুণীকে ধর্ষণ, সেই কনস্টেবল বরখাস্ত
ফাইল ছবি

নোয়াখালীর সুধারাম মডেল থানা এলাকায় ট্রাফিক পুলিশের কোয়ার্টারে তরুণীকে (২৩) ধর্ষণের ঘটনায় ট্রাফিক পুলিশের কনস্টেবল মকবুল হোসেনকে (৩২) সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। শনিবার (৮ জানুয়ারি) রাত ৮টার দিকে নোয়াখালীর পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম আরটভি নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ধর্ষণ মামলায় কারাগারে থাকা কনস্টেবল মকবুলকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এ ঘটনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হেড কোয়ার্টার) মোরতাহিন বিল্লাহকে প্রধান করে তিন সদস্যের বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির প্রতিবেদন হাতে পেলে বিধিমোতাবেক পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হেড কোয়ার্টার) মোরতাহিন বিল্লাহ আরটিভি নিউজকে বলেন, আমাকে প্রধান করে তিন সদস্যের বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট আমরা তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিব।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সুধারাম মডেল থানার পরিদর্শক (অপারেশন) মিজানুর রহমান পাঠান জানান, আজ ভিকটিম ২২ ধারায় আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন। আগামীকাল রোববার (৯ জানুয়ারি) ডিএনএ পরীক্ষার জন্য তাকে ঢাকায় নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

প্রসঙ্গত, গতকাল শুক্রবার (৭ জানুয়ারি) সুধারাম মডেল থানা এলাকায় ট্রাফিক পুলিশের কোয়ার্টারে এক তরুণীকে ধর্ষণের ঘটনায় মামলা করেন তার মা। ট্রাফিক পুলিশের কনস্টেবল মকবুল হোসেনসহ চারজনকে গ্রেপ্তারের পর ওই মামলায় আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

ওই চারজন হলেন- নোয়াখালী সদর ট্রাফিক পুলিশের কনস্টেবল মকবুল হোসেন (৩২), বেগমগঞ্জ উপজেলার নাজিরপুর গ্রামের সিএনজিচালক মো. কামরুল (২৫), সদর উপজেলার দাদপুর গ্রামের আবদুল মান্নান (৪৯) এবং বেগমগঞ্জ উপজেলার অনন্তপুর গ্রামের নুর হোসেন কালু (৩০)।

এমআই/টিআই

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS