Mir cement
logo
  • ঢাকা সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

রাজবাড়ী প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ০৮ জানুয়ারি ২০২২, ১৯:৫৭

রাজবাড়ীতে পান চাষে আগ্রহ হারাচ্ছেন চাষিরা

রাজবাড়ীতে পান চাষে আগ্রহ হারাচ্ছেন চাষিরা
ফাইল ছবি

আবহাওয়ার অনুকূল পরিবেশ ও বিদেশে মিষ্টি পানের ব্যাপক চাহিদা থাকার পরেও করোনার প্রভাবে রপ্তানি বন্ধ ও দাম কম থাকায় পান চাষে আগ্রহ হারাচ্ছেন রাজবাড়ীর পান চাষিরা। এতে অনেক চাষি পানের বরজ ভেঙে অন্যচাষে ঝুঁকে পড়ার চেষ্টা করছেন।

বালিয়াকান্দি কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, বালিয়াকান্দি উপজেলাতে ৮৮ হেক্টর জমিতে মিষ্টি পান ও সাচি পানের আবাদ করা হয়েছে। ৬৫৮টি মিষ্টি পানের বরজ, ১৫৬টি সাচি পান বরজসহ ৮১৪টি বরজে ৮৮ হেক্টর জমিতে পানের চাষ হয়। মিষ্টি পান চাষে উর্বর ভূমি হিসেবে পরিচিত বালিয়াকান্দি উপজেলা। এ অঞ্চলের পানের সুখ্যাতি বহু পুরনো। এখানে সাধারণত দুই জাতের পান উৎপাদন হয়। মিষ্টি পান আর সাচি পান। এখানকার মিষ্টি পান দেশের চাহিদা মিটিয়ে পৃথিবীর ৮টি দেশে রপ্তানি করা হতো। তবে সরকারি পৃষ্টপোষকতা ও সহজশর্তে ঋণের ব্যবস্থা করলে প্রতি বছর কোটি টাকা আয় করা সম্ভব ছিল। অনেক সময় পান চাষিদের বেকায়দায় পড়তে হয়। কারণ রোগের বিষয়ে কৃষি বিভাগে নেই কোনো সু-পরামর্শের সুযোগ।

পান চাষি গনেশ মিত্র বলেন, বালিয়াকান্দির আড়কান্দি, বেতেঙ্গা, চরআড়কান্দি, ইলিশকোল, স্বর্প বেতেঙ্গা, খালকুলা, বালিয়াকান্দি, বহরপুর, যদুপুর এলাকায় ব্যাপক পানের আবাদ হয়। তবে এখন পানের দাম একেবারেই কম হওয়ায় ক্ষতির সম্মুখীন হতে হচ্ছে পান চাষিদের। ৮০টি পান আগে ২০-২৫ টাকায় বিক্রি হতো সেই পান এখন মাত্র ৪-৫ টাকা দামে বিক্রি হয়। তবে বাজারে একেকটি পান কিনে খেতে গেলে ঠিকই ৫ টাকা দিয়েই কিনে খেতে হচ্ছে।

পানচাষির ছেলে কলেজ ছাত্র সুজন মিত্র বলেন, মিষ্টি পান রাজবাড়ী জেলাসহ পার্শ্ববর্তী জেলার চাহিদা মিটিয়ে ভারত, পাকিস্তান, ভুটান, মালদ্বীপ, শ্রীলংকা, নেপাল, সৌদি আরব, মালয়েশিয়া রপ্তানি করা হতো। বর্তমানে বাজারে পানের দাম একেবারে নেই। পান চাষি আলোক রাহা বলেন, এ বছর লাভের আশা করছিলাম। তবে কয়েকদিনের ঘন বৃষ্টির কারণে ও পানের দামই নেই। কৃষি কর্মকর্তারাও কোনো পরামর্শ দিতে পারেন না। তাই বিষয়টি নিয়ে গবেষণার দাবি জানাই। অপর পান চাষি, পংকজ ইন্দ্র বলেন, সরকারিভাবে তাদের সুদমুক্ত ঋণের ব্যবস্থা করলে পান চাষকে আরো লাভজনক ও জনপ্রিয় করে তোলা সম্ভব হবে। এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. আনোয়ার হোসেন যুগান্তরকে বলেন, এখন রপ্তানি বন্ধ রয়েছে। তবে পান রফতানি করতে চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। পান চাষিদের সব সময় উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তারা পরামর্শ প্রদান করছেন বলে জানান এই কর্মকর্তা।

আরএ/

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS