Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ১১ আষাঢ় ১৪২৯

চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী হলেন যারা

চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনে যারা বিজয়ী হলেন
ছবি: আরটিভি নিউজ

বিচ্ছিন্ন সহিংসতার মধ্য দিয়ে দেশের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের চতুর্থ ধাপে ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ভোটগ্রহণ রোববার (২৬ ডিসেম্বর) সকাল ৮টায় শুরু হয়ে বিরতিহীনভাবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলে। দিনভর জাল ভোট, ভোট বর্জন, ব্যালট পেপার ছিনতাই ও হামলা-পাল্টাহামলার ঘটনা ঘটেছে দেশের বিভিন্ন ভোটকেন্দ্রে। সারাদেশ থেকে পাঠানো প্রতিনিধিদের রিপোর্ট।

নেত্রকোনা

চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনে নেত্রকোনার সদর, মোহনগঞ্জ ও খালিয়াজুরী উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের ৮টিতে জয় পেয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীরা (নৌকা)। আর বাকি ৪টিতে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্বাচিত হন।

রোববার (২৬ ডিসেম্বর) রাতে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আবদুল লতিফ শেখ বেসরকারিভাবে ফলাফলের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। মোহনগঞ্জের ৭টি ইউনিয়নের মধ্যে ৬টিতে নৌকার প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। আর একটিতে বিদ্রোহী প্রার্থী জয়লাভ করেন।

সুনামগঞ্জ

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার ৯ ইউনিয়নের ৩টি আওয়ামী লীগ, ৪টি আ.লীগ বিদ্রোহী ও ২টি বিএনপি স্বতন্ত্র প্রার্থী বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন।

হবিগঞ্জ

হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে ১৪টি ইউনিয়নের ১১টিতেই নৌকা প্রার্থীরা জয়ী হয়েছেন।লাখাইয়ে ৬টি ইউনিয়নের ২টিতে নৌকা প্রার্থীরা জয়ী হয়েছেন। দুটিতে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী এবং দুটিতে আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী জয়ী হয়েছেন।

কুষ্টিয়া

চতুর্থ ধাপে কুষ্টিয়ার কুমারখালী ও খোকসা উপজেলার ২০ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ৭, স্বতন্ত্র ১২ ও বিএনপি ১টিতে বিজয়ী হয়েছেন।

রোববার (২৬ ডিসেম্বর) নির্বাচনী কর্মকর্তারা বেসরকারিভাবে এ ফলাফল ঘোষণা করেন। এরমধ্যে খোকসার বেতবাড়িয়া ইউনিয়নে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হন নৌকার প্রার্থী বাবুল আক্তার।

মানিকগঞ্জ

মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার ৭টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৩টিতে জয় পেয়েছে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীরা এবং ৪টিতে জয় পেয়েছে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা। অন্যদিকে সাটুরিয়া উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের মধ্যে ৬টিতে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীরা এবং ৩টিতে জয় পেয়েছে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা।

ভৈরব

ভৈরবে ৭টি ইউনিয়নের মধ্যে বেসরকারিভাবে ৪টিতে আওয়ামী লীগ ও ৩টিতে বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন।

রাঙ্গামাটি

রাঙ্গামাটিতে ১০টি ইউনিয়নের মধ্যে বেসরকারিভাবে ৯টি স্বতন্ত্র ও আওয়ামী লীগ ১টিতে বিজয়ী হয়েছেন।

চুয়াডাঙ্গা

চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার ৪টি ইউনিয়ন পরিষদের সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে ৪টি ইউনিয়নেই আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী (নৌকা) বিজয়ী হয়েছেন।

রোববার (২৬ ডিসেম্বর) রাতে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে ওই ফলাফল ঘোষণা করা হয়। এর আগে সন্ধ্যার পর থেকে ভোটকেন্দ্রের ফলাফল আসতে শুরু করে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে।

বগুড়া

চতুর্থ ধাপে বগুড়ায় তিনটি উপজেলার ১৩টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত নৌকা মার্কার প্রার্থীদের ভরাডুবি হয়েছে। ১৩টির মধ্যে মাত্র ৩টি ইউনিয়নে নৌকা মার্কার প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। আর বিএনপি সমর্থন করা প্রার্থী জয়ী হয়েছে ৭টি ইউনিয়নে। এ ছাড়াও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ২টিতে এবং অপর একটিতে জামায়াতের প্রার্থী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছে।

রোববার (২৬ ডিসেম্বর) রাত সাড়ে ৯টায় জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে ১৩টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের বেসরকারি ফলাফল পাওয়া গেছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া

চতুর্থ দফায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর ও আখাউড়া উপজেলার ১৫টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্যে বিজয়নগরের ১০টি এবং আখাউড়ার ৫টি ইউনিয়ন। তবে আখাউড়ায় প্রার্থীদের দলীয় প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়নি। বিজয়নগর উপজেলার ১০টি ইউনিয়নের মধ্যে ৫টিতে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। বাকি ৫টিতে জয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহীরা।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ

চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোল উপজেলার চারটি ইউনিয়নের একটিতেও জিততে পারেনি নৌকার প্রার্থীরা। রোববার (২৬ ডিসেম্বর) নির্বাচনে ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী বিজয়ী হয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থীরা। বিজয়ী চার জনের মধ্যে তিনজন বিএনপি সমর্থক ও একজন জামায়াত সমর্থক।

ঠাকুরগাঁও

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ২০ ইউনিয়নের মধ্যে ১৪টিতে আওয়ামী লীগ, ১টিতে বিদ্রোহী, ৩টিতে বিএনপি ও ২ টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে জয় পেয়েছেন।

জয়পুরহাট

চতুর্থ ধাপে জয়পুরহাটের সদর উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৮৬টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার (২৬ ডিসেম্বর) সকাল ৮টা থেকে বিরতিহীনভাবে টানা বিকেল ৪টা পর্যন্ত এ ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। বেসরকারিভাবে ফলাফলে এই ৯টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৮টিতে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ও ১টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন।

নাটোর

নাটোরের সিংড়া উপজেলায় চতুর্থ ধাপে ১২ ইউনিয়নে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে আওয়ামী লীগের (নৌকা) ৮ জন ও বিদ্রোহী ৪ জন বিজয়ী হয়েছে।

রাজশাহী

রাজশাহীতে চতুর্থ ধাপেরে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিচ্ছিন্ন কিছু ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া এবং ভোট গণনার পর ফলাফলে গড়মিল থাকায় নির্বাচন কর্মকর্তাদের অবরুদ্ধের ঘটনার মধ্য দিয়ে নির্বাচনী ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে। এখানে ১৫টি ইউনিয়নের মধ্যে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা ১০টিতে জয় পেয়েছেন। আর বাকি ৫টি ইউনিয়নের মধ্যে ৪টিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ও ১টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন।

দিনাজপুর

চতুর্থ ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দিনাজপুরের বীরগঞ্জ, কাহারোল ও খানসামা এই তিন উপজেলার ২১টি ইউনিয়ন পরিষদে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকে ১০টি এবং ১১টি স্বতন্ত্র প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন।

ঝিনাইদহ

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীদের ভরাডুবি হয়েছে। উপজেলার ১৫ ইউনিয়নের মধ্যে ১০টিতে স্বতন্ত্র ও ৫টিতে নৌকার প্রার্থী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

রোববার (২৬ ডিসেম্বর) রাতে এ তথ্য জানান জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহা.আ. ছালেক।

লক্ষ্মীপুর

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ১৫ ইউনিয়নের মধ্যে সাতটিতে বিদ্রোহী ও ছয়টিতে নৌকার প্রার্থী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়া বাকি দু’টিতে বিএনপিপন্থি প্রার্থী বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

রোববার (২৬ ডিসেম্বর) রাতে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মুহাম্মদ নাজিম উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মাদারীপুর

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার ৬টি ও শিবচর উপজেলার ৩টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা। এ নয় ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন না থাকায় বিচ্ছিন্ন দু’একটি ঘটনা ছাড়া শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন শেষ হয়েছে।

রোববার (২৬ ডিসেম্বর) রাত ১০টার দিকে নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করা হয়।

জামালপুর

জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার সাতটি ইউনিয়নের সবকটিতে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী জয়ী হয়েছেন।

শরীয়তপুর

শরীয়তপুরের ডামুড্যা ও ভেদরগঞ্জ উপজেলায় চতুর্থ ধাপের নির্বাচনে দুই উপজেলার ১৯টি ইউনিয়ন পরিষদে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

রোববার (২৬ ডিসেম্বর) সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলে ভোটগ্রহণ। ভেদরগঞ্জ উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নের মধ্যে ১২টি এবং ডামুড্যা উপজেলার ৭টি ইউপি'তে একযোগে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন বিহীন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। তবে এই নির্বাচনে কোন ইউপি'তে বিএনপি'র প্রার্থী ছিল না।

সিরাজগঞ্জ

চতুর্থ দফায় সিরাজগঞ্জ জেলার কামারখন্দ, শাহজাদপুর ও চৌহালী উপজেলার ২১টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ১৫টিতে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থীরা জয়লাভ করেছেন। এর মধ্যে দুজন বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় জিতেছেন।

জিএম

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS