Mir cement
logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২২, ৪ মাঘ ১৪২৮

রাজবাড়ী প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ৩০ নভেম্বর ২০২১, ২৩:১৮
আপডেট : ৩০ নভেম্বর ২০২১, ২৩:৩৯
discover

স্ত্রীকে নিতে এসে শ্বশুরবাড়িতে জামাইয়ের রহস্যজনক মৃত্যু

স্ত্রীকে নিতে এসে শ্বশুরবাড়িতে জামাইয়ের রহস্যজনক মৃত্যু

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে স্ত্রীকে নিতে এসে শ্বশুরবাড়িতে বাবু মৃধা (২২) নামের এক জামাইয়ের রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। সোমবার সকালে শ্বশুরবাড়িতে একটি গাছের সঙ্গে তাকে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় ঝুলতে দেখা যায়। পরে গোয়ালন্দ ঘাট থানার পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

মৃত যুবক গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ইউনিয়নের সমির মৃধাপাড়ার ইদ্রিস মৃধার ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রায় এক বছর আগে বাবু মৃধার সঙ্গে উপজেলার উজানচর ইউনিয়নের চরকর্ণেশন এলাকার আবুল শেখের মেয়ে সেতুর (১৯) বিয়ে হয়। বিয়ের ৪ মাসের মধ্যে বাবু তার স্ত্রীকে নিয়ে আলাদা হয়ে যান। তিনি দৌলতদিয়া ঘাট এলাকায় কয়েক মাস ভাড়াবাড়িতে থাকলেও কিছুদিন ধরে শ্বশুরবাড়িতে থাকতেন। তবে তিনি পুনরায় বাড়ি ফিরে আসতে চেয়েছিলেন।

বাবু মৃধার বাবা ইদ্রিস মৃধা বলেন, ‘গতকাল রোববার বাবু আমার বাড়িতে এসেছিল। রাতে আমরা একসঙ্গে ভাত খাই। সে পুনরায় বাড়ি ফিরে আসবে বলে আমাকে জানায়। সোমবার সকালে স্ত্রীকে নিয়ে বাড়িতে ফিরে আসবে বলে রাতেই শ্বশুরবাড়িতে চলে যায়। পরদিন তার শ্বশুরবাড়ির পাশের এক লোক জানায় বাবু গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেছে।’

ইদ্রিস মৃধা আরও বলেন, ‘বাবু ওর স্ত্রীকে নিয়ে আলাদা হয়ে যাওয়ার পরও আমি চেষ্টা করেছি ওদের আমার সঙ্গে রাখতে। এ বিষয়ে ওর শ্বশুর আবুলকে বহুবার আমার বাড়িতে এসে ওদের বোঝানোর জন্য বলেছি। কিন্তু তিনি একবারও আসেননি। এমনকি বাবুর মৃত্যুর খবরটিও তিনি বা তার পরিবারের কেউ আমাকে জানায়নি।’

ইদ্রিস মৃধা বিস্ময় প্রকাশ করে বলেন, ‘বাবুর মরদেহ ঝুলন্ত ছিল না। একটা নিচু আমগাছের সঙ্গে গলায় ওড়না প্যাঁচানো অবস্থায় দাঁড়িয়ে ছিল। সে আত্মহত্যা করতে পারে না। তার তো বাড়িতে ফিরে এসে আমাদের সকলের সঙ্গে মিলেমিশে বসবাস করার কথা ছিল।’

এ ব্যাপারে গোয়ালন্দ ঘাট থানার এসআই মিজানুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করি। পরে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ রাজবাড়ীর মর্গে পাঠানো হয়। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে। এ বিষয়ে থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

এমএন/এসকে

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS