Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ৮ কার্তিক ১৪২৮

সড়কের ওপর বিদ্যুতের খুঁটি, ভোগান্তি চরমে 

সড়কের ওপর বিদ্যুতের খুঁটি, ভোগান্তি চরমে 
ভোগান্তি চরমে 

পটুয়াখালীর কলাপাড়া পৌর শহরের মুন্সিঘাট সড়কের ওপর বিদ্যুতের খুঁটির জন্য চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে মানুষ। যানবাহন চালাতে ও মালামাল নিয়ে দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন চালকেরা। সড়কের মাঝখানে থাকা খুঁটি থাকার কারণে প্রতিদিনই কোনো না কোনো দুর্ঘটনা ঘটছে।

রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে সরেজমিনে গিয়ে এই চিত্র দেখা যায়। এদিকে সড়ক নির্মাণের প্রায় দেড় বছর পেরিয়ে গেলেও সড়কের ওপর থেকে বিদ্যুতের খুঁটিগুলো সরানোর কোনো উদ্যোগ নেয়া হয়নি। মারাত্মক ঝুঁকি হয়ে সড়কের মাঝখানে দাঁড়িয়ে আছে পল্লী বিদ্যুতের ৭৫ কেভি ভোল্টেজ লাইনের খুঁটি। এতে এলাকাবাসী ও পথচারীদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

সম্প্রতি সরেজমিন দেখা গেছে, পৌর শহরে মুন্সিঘাট সড়কের ওপর বিদ্যুতের খুঁটির জন্য যানবাহন চালাতে গিয়ে দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন চালকরা। রাস্তার মাঝখানে দাঁড়িয়ে আছে বিদ্যুতের খুঁটি। কিন্তু সড়কের মাঝখানে বিদ্যুতের খুঁটির কারণে দু’টি গাড়ি এক সঙ্গে ক্রসিং করতে সমস্যায় পড়ছে। নতুন কোনো চালক খুঁটির সঙ্গে ধাক্কা লেগে দুর্ঘটনার শিকার হন। ওই ঘাট দিয়ে নৌপথে কলাপাড়া ও বিচ্ছিন্ন বদ্বীপ রাঙ্গাবালী উপজেলার মানুষ চলাচল ও মালামাল পরিবহন করা হয়। গত মঙ্গলবার দিন কলাপাড়ার ঐতিহ্যবাহী হাট বসায় কলাপাড়া ও রাঙ্গাবালীর প্রায় ৪০টির মতো ট্রলার ও নৌকা ওই ঘাটে ভিড়ে। দোকানিদের মালামাল ট্রলারে তুলতে হয় মাথায় করে ওই রাস্তা দিয়ে।

মুন্সিঘাট ভ্যান চালক মালেক আরটিভি নিউজকে জানান, রাস্তা থেকে খুঁটি সরানোর বিষয়ে পল্লী বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষের কোনো উদ্যোগ নেই। সড়কের মাঝখানে বিদ্যুতের খুঁটি থাকায় প্রতিদিনেই ঝুঁকি নিয়ে রাস্তা ব্যবহার করছে মানুষ।

মুন্সিঘাট স’মিল ব্যবসায়ী তানভীর মুন্সি আরটিভি নিউজকে জানান, জনস্বার্থে দ্রুত রাস্তার ওপর থেকে খুঁটি সরানো দাবি করেন তিনি। এ জন্য সড়কে চলাচলরত যানবাহন ও সাধারণ পথচারীরা দুর্ঘটনার শিকার হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে কলাপাড়া পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম আরটিভি নিউজকে বলেন, আমার সঙ্গে তারা একবার দেখা করেছেন। কিন্তু এখন প্রশ্ন হলো বিদ্যুতের খুঁটিটি কার দোকানের সামনে পুঁতে দেবো?

জিএম

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS