Mir cement
logo
  • ঢাকা বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ৫ কার্তিক ১৪২৮

শরীয়তপুরে প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ১০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৩৯
আপডেট : ১০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৪৯

শরীয়তপুরের শিক্ষার্থীরা স্কুলে ফিরতে পারবে?

শরীয়তপুরের শিক্ষার্থীরা স্কুলে ফিরতে পারবে?

শরীয়তপুরে পদ্মা নদীর পানি সুরেশ্বর পয়েন্টে বিপদসীমার ৬২ সেন্টিমিটার ওপরে প্রবাহিত হচ্ছে। এ কারণে জেলার জাজিরা ও নড়িয়ার ৩০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। পানিবন্দী হয়ে পড়েছে অন্তত ১০ হাজার মানুষ। চারটি উপজেলার দুটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষ এবং ৫৮টি প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্কুলের মাঠ বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে। এতে এসব বিদ্যালয় খোলা নিয়ে দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা।

পানির নিচে থাকা বিদ্যালয়গুলির মধ্যে রয়েছে সদর উপজেলার চারটি, জাজিরা উপজেলার ১৯টি, নড়িয়া উপজেলার ২৮টি এবং ভেদরগঞ্জ উপজেলার চারটি বিদ্যালয়। এছাড়া নড়িয়া উপজেলার পূর্ব নড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও চরজপসা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এই দুইটি বিদ্যালয়ের শ্রেণি কক্ষে বন্যার পানি প্রবেশ করেছে।

ভেদরগঞ্জ কাঁচিকাটা মাথা ভাঙ্গা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নাছিম ইকবাল বলেন, স্কুলের চারদিকে পানি। পানি না কমলে ক্লাস করানো সম্ভব হবে না।

নড়িয়ার ঈশ্বরকাঠি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিজানুর রহমান বলেন, স্কুল মাঠে পানি জমেছিল। তবে এখন পানি কমে যাচ্ছে।

জাজিরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মাদ আশরাফুজ্জামান ভূঁইয়া বলেন, আমি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা জানান, বিদ্যালয়ের মাঠে পানি উঠেছিল, এখন নেমে যাচ্ছে। পানি কমতে থাকলে আগামী ১২ সেপ্টেম্বর স্কুলে ক্লাস করা সম্ভব হবে।

উল্লেখ্য, আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে সরকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার অনুমতি দিয়েছে সরকার।

এসএস

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS