Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১ কার্তিক ১৪২৮

সেন্টমার্টিনগামী ১০০ যাত্রী বহনকারী ট্রলার বিকল

সেন্টমার্টিনগামী ১০০ যাত্রী বহনকারী ট্রলার বিকল
সেন্টমার্টিনগামী ১০০ যাত্রী বহনকারী ট্রলার বিকল

কক্সবাজারের টেকনাফ ছেড়ে যাওয়া সেন্টমার্টিনগামী একটি যাত্রীবাহী ট্রলার বঙ্গোপসাগরের মোহনার আগে নাফ নদীর শাহপরীর দ্বীপ নামক স্থানে একটি ট্রলার বিকল হয়ে পড়ে। অবশেষে ঘণ্টাদুয়েক ধরে উদ্ধার তৎপরতায় যাত্রীদের নিরাপদে উদ্ধার করে পুলিশ।

শুক্রবার (২৭ আগস্ট) বেলা ৩টার দিকে টেকনাফ সেন্টমার্টিন নৌরুটের শাহপরীর দ্বীপ নামক স্থানে ট্রলারটির যাত্রীদের উদ্ধার করা হয়। নৌঘাট থেকে ছেড়ে গিয়ে সাগরের মোহনার আগে নাফ নদীতে ট্রলারের ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়লে আতঙ্ক বেড়ে যায় যাত্রীদের।

টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাফিজুর রহমান জানান, প্রতিদিনের মতো ওই ট্রলারটি বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ১০০ জন যাত্রী নিয়ে সেন্টমার্টিনের উদ্দেশ্যে টেকনাফ নৌঘাট ছেড়ে যায়। কিছুদূর গিয়ে বঙ্গোপসাগরের মোহনার আগে নাফ নদীতে ট্রলারের ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়ে। এতে ট্রলারে থাকা নারী-পুরুষ ও শিশুদের মধ্যে আতঙ্ক বেড়ে যায়। অনেকেই তীরের অন্যান্য ট্রলারের মাঝিদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে থাকেন। এক পর্যায়ে বিষয়টি পুলিশের কাছে পৌঁছালে টেকনাফ শাহপরীর দ্বীপ ক্যাম্পের উপপরিদর্শক মো. মিজানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ উদ্ধার তৎপরতা চালায়। প্রায় দুই ঘণ্টা উদ্ধার তৎপরতা চালিয়ে সবাইকে নিরাপদে উদ্ধার করে খাদ্য সহায়তা দেয়া হয়। তারা সবাই সেন্টমার্টিনের বাসিন্দা। পরে ট্রলারটি ইঞ্জিন ঠিক হয়ে গেলে বেলা চারটার দিকে যাত্রীদের নিয়ে আবারও রওনা করে।

এসআই মিজানুর রহমান জানান, যাত্রীদের পৌঁছানোর জন্য বিকল্প ট্রলার আনা হয়েছিল। কিন্তু মাঝি সেন্টমার্টিন পূর্বপাড়ার বাসিন্দা মো. আয়াজ (৩০) ট্রলারটির নিশ্চয়তা দেওয়ায় ওই ট্রলারে করে সকল যাত্রীদের নিরাপদে ফের পাঠানো হয়।

মুঠোফোনে ট্রলারটির চালক মো. আয়াজ বলেন, ট্রলারের ইঞ্জিন বিকল হওয়ার কারণে সমস্যা হয়। পরে ইঞ্জিন ঠিক করে আবার যাত্রীদের নিয়ে রওনা হই।

কিছুদিন আগে অপর একটি ট্রলার ৪০ জন যাত্রী নিয়ে বিকল হয়ে সাগরে ১২ ঘণ্টা আটকে ছিল। বারবার জাহাজ আটকের ঘটনায় ওই নৌরুটে চলাচলকারীদের আতঙ্কে পারাপার করতে হয়। লক্করঝক্কর ট্রলারের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন তারা।

পি

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS