Mir cement
logo
  • ঢাকা বুধবার, ০৪ আগস্ট ২০২১, ২০ শ্রাবণ ১৪২৮

শীর্ষ সন্ত্রাসী পিস্তল গোলজার গ্রেপ্তার 

শীর্ষ সন্ত্রাসী পিস্তল গোলজার গ্রেপ্তার 
গ্রেপ্তারকৃত গোলজার হোসেন প্রকাশ

চট্টগ্রামের তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী ও ডবলমুরিং থানার তালিকাভুক্ত ১ নং আসামি গোলজার হোসেন প্রকাশ ওরফে পিস্তল গোলজারকে (৩৯) অস্ত্র, গুলি ও ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

সোমবার (১৯ জুলাই) গভীর রাতে নগরীর ডবলমুরিং থানার দাইয়াপাড়া থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তি ডবলমুরিং থানার দাইয়াপাড়ার আছিয়া বাপের বাড়ির মো. মুছা প্রকাশ কালা বুচুইক্কা প্রকাশ বু চিক্কার ছেলে গোলজার হোসেন প্রকাশ। তার বিরুদ্ধে অস্ত্র, মাদক, ছিনতাই, চাঁদাবাজি, হত্যা-প্রচেষ্টা, বিস্ফোরকসহ বিভিন্ন থানায় ১৫টি মামলা রয়েছে। তিনি ডবলমুরিং থানা যুবদলের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক।

ডবলমুরিং থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন আরটিভি নিউজকে জানান, গোলজার চট্টগ্রামের তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী এবং ডবলমুরিং থানার তালিকাভুক্ত ১ নং আসামি। সে ডবলমুরিং এলাকার ত্রাস। চুরি থেকে শুরু করে ছিনতাই, চাঁদাবাজি, মাদকসহ এমন কোন অপরাধ নেই যা সে করে না। গোলজার ভিক্ষুকের কাছ থেকেও ২০ টাকা চাঁদা নেয়। আবার ২০০ টাকা দিলেই যে কাউকে গিয়ে মেরে আসে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল সোমবার রাত সাড়ে ১১টায় দাইয়াপাড়া থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে ১টি দেশীয় তৈরি পাইপ গান, ১ রাউন্ড গুলি ও ১০৫ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

তিনি জানান, গোলজার সবসময়ই পকেটে পিস্তল ও হাতে হাতুড়ি রাখে। যখন তখন যাকে তাকে গুলি করে। ২০১৮ ডিশ ব্যবসাকে কেন্দ্র করে টিপু ও সগীরকে গুলি করে গোলজার। ২০১৩ সালে পুলিশকে লক্ষ্য করেও গুলি করে। আর কেউ তার কথার অবাধ্য হলে তাকে হাতুড়িপেটা করে। সর্বশেষ গত ১১ জুলাই দাইয়াপাড়ায় রাশেদ নামে একজনকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে আহত করে পালিয়ে যায়। তার এক সপ্তাহ আগে আরও একজনকে একই কায়দায় পিটিয়ে আহত করেন।

তিনি আরও জানান, বর্তমানে গোলজার ডবলমুরিং থানার চিহ্নিত মাদক বিক্রেতা। মূলত টেকনাফ থেকে আনা ইয়াবা সে খুচরা বিক্রি করে। এজন্য তার ৩ জনের একটি বিক্রয় প্রতিনিধি দলও আছে। কমিশনের ভিত্তিতে তারা গোলজারের ইয়াবা বিক্রি করে। তার বিরুদ্ধে মাদক আইনে ২টি মামলা রয়েছে।

জিএম

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS