Mir cement
logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩ আশ্বিন ১৪২৮

বগুড়া প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ২৬ জুন ২০২১, ০৮:৩৫
আপডেট : ২৬ জুন ২০২১, ০৮:৪৫

এএসপি পরিচয়ে পঞ্চম বিয়ে, পরে জানা গেলো বাদাম বিক্রেতা ‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌

এএসপি পরিচয়ে পঞ্চম বিয়ে, পরে জানা গেলো বাদাম বিক্রেতা ‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌
আব্দুল আলীম

মোবাইলে মিস কল দিয়ে শুরু, এরপর মোবাইলে কথোপকথন। শুরু হয় প্রণয়, নিজেকে পুলিশের এএসপি পরিচয় দিয়ে এক বছরের বেশি সময় ধরে মুঠোফোনে এই প্রেমালাপ। বগুড়ায় পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) পরিচয়ে কলেজ পড়ুয়া ছাত্রীকে বিয়ে করে প্রতারণার অভিযোগে আব্দুল আলীম (৩২) নামে দুই সন্তানের জনককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আরও পড়ুন...লকডাউনে ব্যাংক খোলা না বন্ধ সিদ্ধান্ত আজ

এরপর প্রেমিকার বাড়িতে এসে সরাসরি বিয়ের প্রস্তাব, তবে পুলিশের নতুন চাকরি তাই গোপন রাখার অনুরোধ। মেয়ের পরিবারও এএসপি জামাই পাবার আশায় এবং মেয়ের উজ্জ্বল ভবিষ্যতের কথা ভেবে সম্মতি দিয়ে দিতে দেরি করেনি।

গত ১৮ জুন মেয়ের বাড়িতেই ৩ লাখ ৫০ হাজার ৫ শত টাকা দেন মোহরানা ধার্য করে সম্পন্ন করেন বিয়ে। আর এভাবেই প্রতারণা করে প্রতারক আলীম তার পঞ্চম বিয়ে করেন। বসবাস করতে থাকেন শ্বশুর বাড়িতেই।

আরও পড়ুন...কঠোর লকডাউনে যা বন্ধ ও খোলা থাকবে

একপর্যায়ে মেয়েটির পরিবারের সন্দেহ হলে তারা আলীমকে চাকরির ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে। জেরার মুখে সে জানায়, সে পুলিশ কর্মকর্তা নয়, বাদাম বিক্রেতা। পরে থানায় খবর দিলে পুলিশ আলীমকে আটক করে।

বগুড়া সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আলীম জানিয়েছে এর আগে সে এভাবে প্রতারণা করে আরও ৪টি বিয়ে করেছে। তার প্রথম পক্ষের স্ত্রীর দুটি সন্তানও রয়েছে।

শুক্রবার (২৫ জুন) ওই কলেজ ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে এবং প্রতারণার অভিযোগে থানায় মামলা করেছেন। ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আলীমকে আদালতের মাধ্যমে বগুড়া জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এমআই

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS