Mir cement
logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১, ৩১ বৈশাখ ১৪২৮

কুড়িগ্রামে উত্তর প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ১৯ এপ্রিল ২০২১, ১৭:৪১
আপডেট : ১৯ এপ্রিল ২০২১, ১৮:০৯

ঘরে নববধূর মরদেহ ফেলে নাকফুল নিয়ে উধাও স্বামী

ঘরে নববধূর লাশ ফেলে নাকফুল নিয়ে উধাও স্বামী
ঘরে নববধূর লাশ ফেলে নাকফুল নিয়ে উধাও স্বামী

কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে ঘরে নববধূর মরদেহ ফেলে রেখে নাকফুল নিয়ে উধাও হয়েছে এক স্বামী। সোমবার (১৯ এপ্রিল) সকালে কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার রামখানা ইউনিয়নের পূর্ব রামখানা দোলারপাড় গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, একমাস আগে ওই এলাকার আবদার আলীর ছেলে হাফিজুর রহমান হাবুর সাথে ভূরুঙ্গামারী উপজেলার পাইকেরছড়া ইউনিয়নের গছিডাঙ্গা গ্রামের আব্দুছ সালামের মেয়ে তারামনির বিয়ে হয়। বিয়ের পর হতে শশুর বাড়িতেই থাকতো তারামনি।

সোমবার ভোররাতে সাহারী খেয়ে স্বামী স্ত্রী নিজ ঘরে শুতে যায়। অনেক বেলা পর্যন্ত তাদের কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে বাড়ির লোকজন তাদের ঘরে গিয়ে দেখে বাহির থেকে ঘরের দরজা বন্ধ করে দেয়া আছে। দরজা খুলে ভিতরে প্রবেশ করলে বিছানায় তারমনির মরদেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়। এসময় তার নাকের ফুল এবং স্বামীকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে ঘটনার পরপরই নাকফুল নিয়ে উধাও হয়েছে স্বামী হাফিজুর রহমান হাবু। তারামনির পরিবারের লোকজনের দাবী এটি একটি হত্যাকাণ্ড।

পরে বিকালে (সোমবার) তারামনির বড় ভাই আজাদুল ইসলাম নাগেশ্বরী থানায় হাফিজুরকে অভিযুক্ত করে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। তিনি জানান, আমাদের সন্দেহ হাফিজুর রহমান হাবু ভোর থেকে সুর্যোদয় এর মধ্যে যে কোন সময় তারামনিকে কীটনাশক পান করিয়ে অথবা শ্বাসরোধে হত্যা করে ঘরের দরজায় সিটকিনি দিয়ে পালিয়ে গেছে। স্বাভাবিক মৃত্যু হলে তো তার পালিয়ে যাওয়ার কথা নয়। এ কারনে আমি থানায় অভিযোগ করেছি। যদি আমার বোনকে মেরে ফেলা হয় তাহলে আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

নাগেশ্বরী থানার ওসি রওশন কবীর জানান, মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতলের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।প্রকৃত রহস্য উৎঘাটনের চেষ্টা চলছে। ময়না তদন্তের রির্পোট পাওয়ার পর মৃত্যুর আসল ঘটনা জানা যাবে।

এমআই

RTV Drama
RTVPLUS