logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ২ বৈশাখ ১৪২৮

বগুড়া প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ০৩ এপ্রিল ২০২১, ১৬:১০
আপডেট : ০৩ এপ্রিল ২০২১, ১৬:২৮

বউ-সন্তানকে খুন করতে নিজ ঘরে আগুন দিল নজরুল 

Nazrul set fire to his house to kill his wife and child
বউ-সন্তানকে খুন করতে নিজ ঘরে আগুন দিল নজরুল

বগুড়ার শেরপুর উপজেলার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের খন্দকারপাড়া এলাকায় স্ত্রী ও ছেলেকে খুন করার উদ্দেশে ঘরের দরজা বন্ধ করে আগুন দেয়ার অভিযোগ উঠেছে নজরুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। শনিবার (৩ এপ্রিল) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ওই এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়দের থেকে জানা যায়, শেরপুর উপজেলার ওই এলাকার মৃত দুদু মিয়ার ছেলে নজরুল ইসলাম বিগত ৪ থেকে ৫ বছর আগে বরিশালে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। তারপর থেকে প্রথম স্ত্রী শাহানাজ পারভীনকে কোনো খরচ না দিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দেয়ার পরিকল্পনা শুরু করতে থাকে। একই সঙ্গে নানাভাবে হুমকি-ধমকি অব্যাহত রাখেন। এ নিয়ে পারিবারিক কলহ চরম আকার ধারণ করে।

শনিবার (৩ এপ্রিল) এরই জের ধরে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে প্রথমে স্ত্রী শাহনাজ পারভীন, ছেলে আবু নোমান ও ছেলের বউ মুক্তা আক্তারকে মারধর করতে থাকেন তিনি। একই সঙ্গে বাড়ি-ঘরে ভাঙচুর চালান। এ সময় তারা জীবন রক্ষার্থে ৯৯৯ এ ফোন দেন। পরে শেরপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের উদ্ধারসহ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে চলে যায়। এতে আরও ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন অভিযুক্ত নজরুল ইসলাম। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে নজরুল ইসলাম ঘরের দরজা বন্ধ করে স্ত্রী, ছেলে ও পুত্রবধূকে খুন করার উদ্দেশ্যে আগুন ধরিয়ে দেন। পরে তাদের চিৎকারে স্থানীয়রা ফায়ার সার্ভিসকে সংবাদ দিলে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

ভুক্তভোগী স্ত্রী শাহানাজ পারভীন বলেন, দ্বিতীয় বিয়ের পর থেকে আমাদেরকে বিভিন্নভাবে জীবননাশের হুমকি দিয়ে আসছিল স্বামী নজরুল। একই সঙ্গে বাড়ি থেকে বের করে দেয়ার জন্যও চেষ্টা করে। কিন্তু স্বামীর বসতভিটা ছেড়ে না যাওয়ার কারণেই আমাদেরকে খুন করার উদ্দেশে ঘরে দরজা বন্ধ করে আগুন দেয়।

এই ঘটনার বিষয়ে শেরপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) এসএম আবুল কালাম আজাদ বলেন, আমরা ৯৯৯ থেকে একটি মোবাইল ফোন পেয়ে জানতে পারি খন্দকারপাড়ায় একটি বাড়িতে ভাঙচুর চালানো হচ্ছে। এর পরে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। পরবর্তীতে সেখানে আবার বাড়ির দরজা বন্ধ করে আগুন দেয়া হয়েছে বলে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি।

জিএম/পি

RTV Drama
RTVPLUS