logo
  • ঢাকা রোববার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ৫ বৈশাখ ১৪২৮

বেয়াই-বেয়াইনের বিয়ে, ২ বছরের মাথায় ৫ টুকরা করে স্ত্রীকে হত্যা

Married with love, the husband cut his wife into 5 pieces #আরটিভি
প্রেম করে বিয়ে, স্ত্রীকে ৫ টুকরা করলেন স্বামী আরটিভি নিউজের সংগৃহীত ছবি

গাজীপুর সদর উপজেলাতে স্ত্রীকে হত্যার পর ৫ টুকরা করে ময়লার স্তূপে লুকিয়ে রাখার অভিযোগে স্বামী জুয়েল আহমেদকে (২২) আটক করেছে থানা পুলিশ।

আজ রোববার (৭ মার্চ) দুপুরে গাজীপুর সদর উপজেলার মনিপুর এলাকা থেকে মরদেহের অংশগুলো উদ্ধার করে তাকে আটক করা হয়।

নিহত গৃহবধূর নাম রেহেনা আক্তার (১৯)। তিনি সুনামগঞ্জ জেলার বিশ্বম্ভপুর থানার পলাশ ইউনিয়নের কাচিরগাতি গ্রামের আব্দুল মালেকের মেয়ে। আর আটককৃত জুয়েল আহমেদ সুনামগঞ্জ জেলার বিশ্বাম্ভরপুর উপজেলার পলাশ ইউনিয়নের কাচিরগাতি গ্রামের আবদুল বাতেনের ছেলে।

জানা গেছে, রেহেনা আক্তার ও জুয়েল আহমেদ সম্পর্কে বিয়াইন আর বেয়াই। এরপর প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে তারা ২ বছর আগে বিয়ে করেন। গত ২ মাস ধরে তারা মনিপুর এলাকায় জাকিরের বাড়িতে ভাড়ায় থাকেন। রেহেনা স্থানীয় আরাবী ফ্যাশনে চাকরি করতেন। আর জুয়েল চাকরি ছেড়ে কাপড়ের ব্যবসা করেন।

বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) সংসারের কলহের জেরে দুজনের মধ্যে ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে রেহানাকে মারধর করলে সে অজ্ঞান হয়ে পড়েন। রেহানা মারা গেছে ভেবে গুম করতে জবাই করে মরদেহকে ৫টি টুকরা করেন। এর পরে টুকরাগুলো বস্তায় ভরে রাতের অন্ধকারে একটি ময়লার স্তূপে লুকিয়ে রাখেন।

এ বিষয়ে পুলিশ পরিদর্শক নাজমুল হুদা জানান, স্থানীয়রা ফোন দিয়ে ঘটনা সম্পর্কে অবগত করার পর স্বামীকে আটক করি এবং লাশের টুকরাগুলো কয়েকটি জায়গা থেকে উদ্ধার করা হয়। ঘটনার দন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জিএম

RTV Drama
RTVPLUS