Mir cement
logo
  • ঢাকা বুধবার, ১২ মে ২০২১, ২৯ বৈশাখ ১৪২৮

বিস্তৃত ফসলের মাঠে ‘বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি’

সংগৃহীত

গ্রামের দিগন্ত বিস্তৃত মাঠে তৈরি হয়েছে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি। বগুড়ার শেরপুর উপজেলার পল্লী ভবানীপুর ইউনিয়নের বালেন্দা গ্রামে ১২০ বিঘা ফসলের মাঠে নিখুঁতভাবে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে বঙ্গবন্ধুর এই প্রতিকৃতি। এর নাম দেয়া হয়েছে ‘শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু’। আশা করা হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর এই প্রতিকৃতি গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে অন্তর্ভুক্ত হয়ে নতুন এক রেকর্ড সৃষ্টি করবে বাংলাদেশ।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু জাতীয় পরিষদের উদ্যোগ এবং ন্যাশনাল অ্যাগ্রিকেয়ারের সহযোগিতায় মুজিব জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে শস্যচিত্রে ব্যতিক্রমী এই কর্মসূচি বাস্তবায়িত হয়েছে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, মঙ্গলবার (২ মার্চ) ফসলের মাঠে কৃষি ও কৃষকের স্বপ্ন বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি শস্যচিত্রে ফুটে উঠেছে। প্রতিকৃতিটি আরও নিখুঁতভাবে তুলে ধরতে কাজ চলছে। অনেকে বীজতলার মাঝ থেকে আগাছা উত্তোলন করছেন।

ন্যাশনাল অ্যাগ্রিকেয়ারের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সর্বক্ষণ দেখভাল করছেন চিত্রকর্মটির।

বাস্তবায়নকারী কোম্পানির ব্যবস্থাপক আসাদুজ্জামান জানিয়েছেন, শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতির এই আয়তন হবে ১২ লাখ ৯২ হাজার বর্গফুট, শস্যচিত্রের দৈর্ঘ্য ৪০০ মিটার এবং প্রস্থ হবে ৩০০ মিটার। এটি হবে বিশ্বের সর্ববৃহৎ শস্যচিত্র। ২০১৯ সালে সর্বশেষ চীনে তৈরি শস্যচিত্রের আয়তন ছিল মোট ৮ লাখ ৫৫ হাজার ৭৮৬ বর্গমিটার। এ কারণে এই চিত্রকর্মটি সম্পন্ন হলে বিশ্বের বৃহৎ শস্যচিত্র হিসেবে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে জায়গা করে নিবে।

প্রসঙ্গত, গত ২৯ জানুয়ারি শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি কর্মযজ্ঞের উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির। দুই প্রজাতির উচ্চফলনশীল ধানের চারা রোপণের মাধ্যমে শস্যচিত্রে ফুটে উঠছে বঙ্গবন্ধুর এই প্রতিকৃতি।

এসআর/

RTV Drama
RTVPLUS