logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭

আদালত থেকে ফুল হাতে হাসিমুখে বাড়ি ফিরলেন ৫৪ দম্পতি

চকলেট×উপহার×নির্যাতন×মামলা×শিশু×দম্পতি×শান্তি×আদালত×
ছবি আরটিভি নিউজ

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন মামলায় স্বামীকে কারাগারে না পাঠিয়ে পৃথক ৫৪ টি মামলা আপসে নিষ্পত্তি করে দিয়েছেন আদালত।

তবে ১১ টি মামলায় স্বামীদের বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড প্রদান করেছেন।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে ৬৫টি পৃথক মামলার একসঙ্গে দেওয়া রায়ে সুনামগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. জাকির হোসেন এই আদেশ দেন।

রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, সুনামগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন আদালতের পি.পি অ্যাডভোকেট নান্টু রায়।

রায় ঘোষণার পর আদালতের পক্ষ থেকে ৫৪ দম্পতিকে ফুল ও তাদের সন্তানদের চকলেট উপহার দেওয়া হয়। ফুল হাতে সন্তান ও স্বজনদের সঙ্গে হাসিমুখে বাড়ি ফেরেন তারা।

আদালত সূত্রে জানা যায়, যৌতুকসহ নানা কারণে নির্যাতনের শিকার হয়ে গেলো কয়েক বছরে সুনামগঞ্জের বিভিন্ন উপজেলার ৬৫ জন নারী সংসার থেকে বিতাড়িত হয়ে তাদের স্বামীর বিরুদ্ধে পৃথকভাবে আদালতে মামলা করেছিলেন। নির্যাতনের শিকার হয়ে নারীরা তাদের ছোট ছোট শিশুদের নিয়ে অর্ধাহারে অনাহারে অন্যত্র আশ্রয় নিয়ে অনিশ্চিত জীবন যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছিলেন। অনিশ্চিত জীবন থেকে ৫৪ স্ত্রীকে স্বামীর এবং সন্তানদের তাদের বাবার পারিবারিক বলয়ে আবদ্ধ করে ব্যতিক্রমী আপসের রায় দিলেন বিচারক। বিচারক উভয়েরপক্ষের বক্তব্য শুনে তাদের সন্তানদের এবং তাদের মঙ্গলের জন্য স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে সম্প্রীতির বন্ধন এটে ৫৪ টি দম্পতিকে পারিবারিক পুন:মিলনের ব্যবস্থা করে দেন।

কিন্তু ১১টি পরিবারকে একিভূত করতে সক্ষম না হওয়ায় এবং নির্যাতিত স্ত্রী ও তাদের সাক্ষীরা স্বামীর বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেওয়ায় এবং স্বামীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ১১ স্বামীকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে।

আপাষে নিষ্পত্তিকৃত মামলার বাদী-বিবাদী ও কয়েকজন স্বজন আদালতকে ধন্যবাদ জানিয়েছে বলেছেন, ছোট-খাটো ভুল ও স্বামী-স্ত্রীর রাগারাগির কারণে এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছিল। মামলার কারণে যেসব সংসার ধংসের পথে গিয়েছিল আজ সেই সংসারগুলো একত্রিত হয়েছে। এই রায়ে পরিবারে শান্তি ফিরে এসেছে। কারণ এসব মামলার সুষ্ঠু নিষ্পত্তি না হলে ছোট শিশুরা পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে অযত্ন আর অবহেলায় ভবিষ্যত অন্ধকারে নিপতিত হত। আদালতের এই রায় প্রশংসার দাবিদার।

সুনামগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট নান্টু রায় আরটিভি নিউজকে বলেন, আদালত পৃথক ৬৫ টি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন মামলায় রায় দিয়েছেন। ১১ টি মামলায় ১১ জন স্বামীকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড প্রদান করেছেন। তবে ৫৪টি মামলায় স্বামী-স্ত্রীকে আপসের মাধ্যমে নিস্পত্তি করে দিয়েছেন। এর আগেও তিনি এরকম যুগান্তকারী রায় দিয়েছেন।

তিনি বলেন, এভাবে যদি বিচারকার্য চলে এবং মামলার নিষ্পত্তি হয় তাহলে বিচার ব্যবস্থার উন্নতি হবে। এবং বিচারপ্রার্থী জনগণ তাদের সুবিচার পাবে।

প্রসঙ্গ, গত বছরের ২৫ নভেম্বর একই আদালতের বিচারক মো. জাকির হোসেন একদিনে পৃথক ৪৭টি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন মামলায় ৪৭টি পরিবারকে আপসের মাধ্যমে তাদের স্বাভাবিক জীবনে ফেরত পাঠাতে সক্ষম হয়েছিলেন। এ নিয়ে জেলায় মোট ১০১টি পরিবার ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা পেলো।

জেবি

RTV Drama
RTVPLUS