ফোনে না পেয়ে বাসায় গিয়ে দেখে আড়ার সঙ্গে ঝুলছে বন্ধু 

প্রকাশ | ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৫:৪২ | আপডেট: ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৬:৪১

শরীয়তপুর প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

শরীয়তপুরের নড়িয়ায় ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় গামছা পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে এক কলেজছাত্র।  শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) রাত ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।  আত্মহত্যাকারী মাহবুব হোসেন অন্তু (১৯) উপজেলার বৈশাখীপাড়া গ্রামের আলাউদ্দিন ছৈয়াল (আলাউদ্দিন মেকার) এর ছোট ছেলে। তিনি নড়িয়া সরকারি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, শনিবার রাত ১০টার দিকে মাহবুবের মুঠোফোনে তার বন্ধুরা ফোন দিচ্ছিলেন। তখন মাহবুব ফোন রিসিভ না করায় বন্ধুরা তার বাড়িতে যায়। মাহবুবের থাকার ঘর বন্ধ পাওয়ায়, বাড়ির লোকজন একচালা টিনের ঘরের দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে গলায় গামছা পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস অবস্থায় দেখতে পায় মাহবুবকে। পরে পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মাহবুবকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

মাহবুবের বড় ভাই মো. দুলাল ছৈয়াল বলেন, কি কারণে মাহবুব গলায় ফাঁস দিয়েছে তা বলতে পারি না। অল্প বয়সে ভাইটি মারা গেল। 

নড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান জানান, ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে।

এসএস