logo
  • ঢাকা বুধবার, ০৩ মার্চ ২০২১, ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭

সৈয়দপুরে মধ্যরাতে আ.লীগ-জাপা দফায় দফায় সংঘর্ষ

সৈয়দপুরে মধ্যরাতে আ.লীগ-জাপা দফায় দফায় সংঘর্ষ
ছবি: সংগৃহীত

নীলফামারীর সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টির সমর্থকদের মাঝে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় উভয়পক্ষের ২৫ জন আহত হয়েছেন। এছাড়াও

শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ১১টার দিকে পৌর শহরের গোলাহাট এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, জাতীয় পার্টি সমর্থিত প্রার্থী সিদ্দিকুল আলম সৈয়দপুর পৌর এলাকার গোলাহাট ২ নম্বর উর্দুভাষী ক্যাম্পে নির্বাচনী প্রচারণা চালায়। প্রচারণা শেষে প্রধান নির্বাচনী অফিসে ফেরার পথে আওয়ামী লীগ নেতা হিটলার চৌধুরীর বাসার সামনে জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীদের সঙ্গে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষ ঘটে। এ সময় জাতীয় পার্টি সমর্থকদের দুটি মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেওয়াসহ ২০টি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে সৈয়দপুর থানা পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

জাতীয় পার্টির মনোনীত মেয়র প্রার্থী সিদ্দিকুল আলম জানান, পূর্বপরিকল্পিতভাবে তারা আমাদের ওপর হামলা চালায়। মোট ২২ জন নেতাকর্মী ও সমর্থক গুরুতর আহত হয়েছেন।

সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোকছেদুল মোমিন জানান, জাতীয় পার্টির পথসভায় বক্তারা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করার কারণে স্থানীয় লোকজন প্রতিবাদ করেছে।

সৈয়দপুর থানার ওসি আবুল হাসনাত খান জানান, এ ঘটনায় কোনও পক্ষই এখন পর্যন্ত মামলা করেনি।

উল্লেখ্য, গত ১৬ জানুয়ারি সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ভোটের দুদিন আগে প্রতিদ্বন্দ্বী মেয়র প্রার্থী ও সৈয়দপুর পৌরসভার মেয়র অধ্যক্ষ আমজাদ হোসেন সরকার ইন্তেকাল করেন এবং পৌরসভার ১২ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ আসনের সুলতান খান ঢেনু নামে একজন প্রতিদ্বন্দ্বী কাউন্সিলর প্রার্থী ইন্তেকাল করায় ভোটগ্রহণ স্থগিত হয়ে যায়।

আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি সৈয়দপুর পৌরসভায় ইভিএমের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ করা হবে।

এসএস

RTV Drama
RTVPLUS