আপত্তিকর অবস্থায় দেখে ফেলায় স্ত্রীকে প্রেমিকসহ হত্যা, ঝুলানো হলো একই রশিতে

প্রকাশ | ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৯:৩৩ | আপডেট: ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ২০:১৭

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ
ছবি আরটিভি নিউজ

সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলায় একই রশিতে গলায় ফাঁস লাগানো নারী ও পুরুষের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় দুই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, মৃত গৃহবধূ ফাতেমা বেগমের স্বামী শেখ হাসান ও তার ছোট ভাই আসাদ।

এ ব্যাপারে অপর ঝুলন্ত মৃত যুবক করিম পাড়ের বাবা জয়নাল পাড় বাদী হয়ে কলারোয়া থানায় হত্যা মামলা করেছেন। সাতক্ষীরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মীর্জা সালাউদ্দীন গতকাল সোমবার বেলা ১২টার দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে হত্যা মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, গতকাল রোববার উপজেলার কয়লা ইউনিয়নের শ্রীপতিপুর গ্রামে গাছের ডালে একই রশিতে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধারকৃত মরদেহ গৃহবধূ ফাতেমা বেগম ও যুবক করিম পাড়ের মৃত্যু আত্মহত্যা না।  এটি হত্যার সঙ্গে যুক্তদের একটি সাজানো বিষয়।

 তিনি আরও জানান, হত্যার ঘটনায় ব্যবহৃত লোহার রড উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিক  অনুসন্ধানে জানা গেছে, হত্যার শিকার গৃহবধূ ও যুবকের আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পেয়ে মৃত গৃহবধূর স্বামী শেখ হাসান ও তার ছোট ভাই আসাদসহ অন্যরা তাদেরকে লোহার রড দিয়ে বেদম মারপিটের পর শ্বাসরোধ করে হত্যার পর আত্মহত্যা বলে চালাতে পরিকল্পিতভাবে পার্শ্ববর্তী গাছের ডালে একই রশিতে মৃতদের ঝুলিয়ে রাখা হয়েছিলো।

 অধিকতর পুলিশি তদন্ত অব্যাহত রয়েছে জানিয়ে তিনি আরও বলেন, গ্রেপ্তারকৃত আসামিদের জবানবন্দির জন্য সোমবার সাতক্ষীরা বিজ্ঞ আদালতে পাঠানো হয়েছে।

থানার অফিসার ইনচার্জ মীর খায়রুল কবির আরটিভি নিউজকে জানান, উদ্ধারকৃত দুই ব্যক্তির ঝুলন্ত মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য সাতক্ষীরা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।  প্রসঙ্গত, গতকাল রোববার সকালে গাছের ডালে একই রশিতে উপজেলার শ্রীপতিপুর গ্রামের শেখ হাসানের স্ত্রী গৃহবধূ ফাতেমা বেগম (৪০)  ও একই জেলার শ্যামনগর উপজেলার ধুমঘাট দক্ষিণ পাড়ার জয়নাল পাড়ের ছেলে  করিম পাড়ের (৩০) ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

জেবি