logo
  • ঢাকা সোমবার, ০১ মার্চ ২০২১, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৭

গৃহবধূকে ব্লেড দিয়ে খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে নির্যাতন, গ্রেপ্তার ১

গৃহবধূ, ব্লেড, খুঁচিয়ে, খুঁচিয়ে, নির্যাতন, গ্রেপ্তার

তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বাচ্চা ছেলেদের সঙ্গে ঝগড়া। আর এরই জের ধরে এক গৃহবধূকে (২৫) অমানবিক নির্যাতন করা হয়েছে। এ ঘটনার তিনদিন পর পুলিশ মামলা নেয়ার প্রথম রাতে এক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে।

রোববার (১৭ জানুয়ারি) ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরের বিরাসার এলাকায় ঘটে এ ঘটনা।

জানা গেছে, ওই গৃহবধূকে প্রথমে হাত-পা বেঁধে শারীরিক নির্যাতনের পর ব্লেড দিয়ে তার শরীরে খুঁচানো হয়। এতে রক্তাক্ত জখম হয়ে পড়েন তিনি। ঘটনার তিনদিন পর নির্যাতিতা শান্তার মা মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) বাদী হয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় একটি মামলা করেন। এতে তিনজনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ৪-৫ জনকে আসামি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দায়ের করা মামলায় আসামি করা হয় আলী মিয়া (৩৫), হুমায়ূন মিয়া (৪০) এবং রতন মিয়াকে (৫০)। মামলার রাতে আসামি আলী মিয়াকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে বুধবার দুপুরে আদালতে পাঠানো হয়েছে তাকে। আর এ মামলাটি তদন্ত করছেন সদর মডেল থানা উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. মুজিবুর রহমান।

এ বিষয়ে সদর মডেল থানা পুলিশের ওসি মো. আবদুর রহিম জানান, এ ঘটনায় মামলার পর একজন নামীয় আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সেই সঙ্গে অন্য সকল আসামিদের গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

প্রসঙ্গত, কয়েক মাস আগে ওই গৃহবধূর ছোট ছেলের সঙ্গে তার নিজ চাচার ঝগড়া বাধে। বিষয়টি মারামারি পর্যন্ত গড়ালে চাচার বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন শান্তার পরিবার। সেই মামলাটি তুলে নেয়ার জন্য চাপ দিচ্ছিলেন চাচা। আর সেই ঘটনার জের ধরে রোববার সন্ধ্যায় ওই গৃহবধূর পথরোধ করে তার হাত-পা বেঁধে শারীরিকভাবে নির্যাতন করে চাচা ও তার সহযোগীরা। এক পর্যায়ে ব্লেড দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে রক্তাক্ত জখম করা হয়। পরে তার চিৎকারে লোকজন ছুটে এলে চাচা ও ও তার সহযোগীরা পালিয়ে যায় এবং গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে ওই গৃহবধূকে জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এসআর/এসএস

RTV Drama
RTVPLUS