logo
  • ঢাকা সোমবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২১, ১১ মাঘ ১৪২৭

চার দিন অনশনের পর সত্যিকারের বিয়ে হলো কলেজছাত্রীর

নাটোর×রাজশাহী×প্রেমিক×কলেজছাত্রী×বাংলাদেশ×
প্রতিকী ছবি
নাটোরে বিয়ের দাবিতে চার দিন ধরে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন করে অবশেষে বিয়ে হলো প্রেমিক সাইফুলের সঙ্গে সেই কলেজছাত্রীর।

অনড় মনোভাব নিয়ে অনশন করে চলছিলেন ওই কলেজছাত্রী। নানা চাপ সত্ত্বেও তিনি দাবি থেকে সরে আসেননি। নানা নাটকীয়তার মধ্যে অবশেষে গতকাল সোমবার বিকেলে পুলিশ, জনপ্রতিনিধি, গণমাধ্যমকর্মী ও স্থানীয়দের মধ্যস্থতায় অবশেষে বিয়েটি সম্পন্ন হয়।

নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার পিপরুল ইউনিয়নের ঠাকুর লক্ষ্মীপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

প্রেমিক সাইফুল ওই গ্রামের সিদ্দিক মণ্ডলের ছেলে এবং অনশনরত স্কুলছাত্রী মৃত সোবাহান মণ্ডলের মেয়ে। বাড়ি একই গ্রামের সোনার মোড়ে। 

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান কলিম উদ্দীন বিয়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, দীর্ঘ দুই বছর প্রেম করার পর বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তিন মাস তারা স্বামী-স্ত্রী পরিচয় দিয়ে গাজীপুর জেলার কামরাঙ্গা এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করেছেন। পরে নাটোর আসার পর প্রেমিক সাইফুল কলেজছাত্রীকে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানালে বাসা থেকে পালিয়ে যান।

গেলো শুক্রবার থেকে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন শুরু করেন ওই কলেজছাত্রী। অবশেষে অনশনের চার দিনের মাথায় বিয়েতে রাজি হয় প্রেমিকসহ তার পরিবার। পরে গতকাল সোমবার তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়।

এর আগে প্রেমিক সাইফুল প্রেমিকা পপিকে নিজ বাড়িতে আসতে বলে পালিয়ে যান। এ ঘটনা গণমাধ্যমসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যাওয়ার পর পুলিশ, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি এবং এলাকার লোকজন বিয়ের বিষয়ে মীমাংসা হয়।

চার দিন অনশনের পর প্রেমিক সাইফুল ইসলাম উপস্থিত হলে দুপক্ষের অভিভাবকরা ছয় লাখ এক টাকা দেনমোহর ধার্য করে বিয়ে সম্পন্ন করেন। এ সময় উভয়পক্ষের আত্মীয়স্বজনসহ এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন।  

ভুক্তভোগী ওই কলেজছাত্রী বলেন, আমি আমার অনশনে অনড় ছিলাম। আমি যাকে ভালোবেসেছি তাকেই বিয়ে করেছি। আমি অনেক আনন্দিত। আপনারা আমাদের দুজনের নতুন সংসার জীবনের জন্য দোয়া করবেন। 

জেবি

RTV Drama
RTVPLUS