logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ২ মাঘ ১৪২৭

রাবি সংবাদদাতা, আরটিভি নিউজ

  ১১ জানুয়ারি ২০২১, ২৩:৫৮
আপডেট : ১২ জানুয়ারি ২০২১, ০০:০৮

চাকরির দাবিতে উপাচার্যের বাসভবনে তালা দিলো ছাত্রলীগ

চাকরির দাবিতে উপাচার্য এম আব্দুস সোবহানের বাসভবনের প্রধান ফটকে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক ও বর্তমান নেতাকর্মীরা। 

সোমবার রাত নয়টায় উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান নেন তারা। এক পর্যায়ে প্রধান ফটকে তালা ঝুলিয়ে দেন। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত উপাচার্য তার নিজ বাসভবনে অবরুদ্ধ অবস্থায় রয়েছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সোমবার দুপুরে রেজিস্ট্রার দপ্তরের এড-হকে জালাল নামের একজন প্রতিবন্ধীর চাকরি নিশ্চিত হলে সন্ধ্যার দিকে অন্য চাকরি প্রত্যাশীরা উপাচার্য ভবনের সামনে জড়ো হন। কিছুক্ষণ অবস্থানের পরে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়ার নেতৃত্বে ছয়জনের একটি দল উপাচার্যের সঙ্গে দেখা করেন। উপাচার্য তাদের চাকরি নিশ্চিতের বিষয়ে আশ্বস্ত না করলে বাহিরে এসে তারা উপাচার্যের ভবনের প্রধান ফটকে তালা ঝুলিয়ে দেন। 

এ বিষয়ে রাবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া বলেন, ‘আমরা জানতে পেরেছি সব ধরনের নিয়োগ বাতিল রাখার নির্দেশনা থাকা সত্ত্বেও আজ এড-হকে একজনের নিয়োগ দেয়া হয়েছে। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের কেন চাকরি হচ্ছে না। সেটি জানতেই নেতাকর্মীরা গিয়েছিলেন।’

বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক এম লুৎফর রহমান জানান, অবরুদ্ধকারীরা সকলে চাকরিপ্রত্যাশী। মূলত চাকরির জন্যই তারা অবরুদ্ধ করে রেখেছে। তবে বর্তমানে রাবিতে নিয়োগ প্রদানে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নিষেধাজ্ঞা আছে। যদিও আজ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এক চিঠির প্রেক্ষিতে একজন প্রতিবন্ধী চাকরি প্রার্থীকে বিশ্ববিদ্যালয়ে চাকরি দেয়া হয়েছে। এই বিষয়টি জানার পর ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্যের সঙ্গে দেখা করেছে। উপাচার্য তাদের বুঝিয়ে বলার পরও তারা বাইরে গিয়ে উপাচার্যের বাসভবনের মূল ফটকে তালা দিয়ে দিয়েছে। অনেকবার বলার পরেও তারা সেখানেই অবস্থান নিয়েছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপাচার্যের বাসভবনের প্রধান ফটকে তালা ঝুলছে। প্রায় ৩০ জন চাকরি প্রত্যাশী উপাচার্যের বাসভবনের সামনেই অবস্থান করছেন। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত (রাত সাড়ে এগারোটা) উপাচার্য এখনো অবরুদ্ধ রয়েছেন।

জানতে চাইলে উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় থেকে একটি চিঠি দেয়া হয়েছে একজন প্রতিবন্ধী ছেলেকে চাকরি দেয়ার জন্য। যেহেতু নিয়োগ বন্ধে শিক্ষামন্ত্রণালয়ের নির্দেশ আছে। তাই আমি বিষয়টি সচিবকে জানিয়েছি, তিনি নিয়োগ দিতে বলেছেন এবং নিয়োগ দিয়েছি।’

তিনি বলেন, ‘এর প্রেক্ষিতে সন্ধ্যার দিকে তারা এসে চাকরির দাবি করেছে। কিন্তু আমি জানিয়েছি, সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী নিয়োগ বাতিল রাখা হয়েছে। এখন আমি কোনও নিয়োগ দিতে পারব না।’

এসএস

RTV Drama
RTVPLUS