logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২১, ১৪ মাঘ ১৪২৭

দীর্ঘ ২০ বছর পর প্রভাংশু হত্যার রহস্য উদঘাটন

After 20 long years, the mystery of Prabhanshu's, rtv news
ছবি আরটিভি নিউজ
দীর্ঘ ২০ বছর পর গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ার চাঞ্চল্যকর প্রভাংশু হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটিত হয়েছে।

হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক ও সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে আজ শনিবার বেলা সাড়ে ১১টায় গোপালগঞ্জ  প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেছে প্রভাংশুর পরিবারসহ কোটালীপাড়ার শতাধিক মানুষ ।

মানববন্ধন চলাকালে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন ভিকটিমের বাবা প্রেমানন্দ বিশ্বাস, কাকা পুলিন বিশ্বাস, ভাই হিরন্ময় বিশ্বাস ও রণজিত বিশ্বাস, বোন ঝুনু বিশ্বাস, ভাতিজা রিক্তা বিশ্বাস, এলাকাবাসী সাগর বিশ্বাস, সুশীল বিশ্বাস ও মৃণাল বিশ্বাসসহ অনেকে।

তারা বলেন, আসামিরা উচ্চবিত্ত ও প্রভাবশালী হওয়ায় মামলাটিকে দীর্ঘ ২০ বছর ধরে ঝুলিয়ে রেখেছিল। অনেক দেরিতে হলেও চাঞ্চল্যকর ও ক্লুবিহীন এ হত্যা মামলাটির রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। এজন্য পুলিশের প্রতি কৃতজ্ঞতাও প্রকাশ করেন। এ সময় আসামিদের দ্রুত বিচার নিশ্চিতের দাবি জানান। 

জানা যায়, ২০০১ সালের ১৫ মার্চ গভীর রাতে কোটালীপাড়ার সিকির বাজারস্থ বাংলাদেশ মেডিকেল হল’নামক ওষুধের দোকানের কর্মচারী প্রভাংশু বিশ্বাস (৩৩) দোকান মালিকের হাতে খুন হন।

হত্যাকাণ্ডের পরদিন ১৬ মার্চ পরিবারের পক্ষ থেকে কোটালীপাড়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। পরবর্তীতে কোটালীপাড়া থানা, সিআইডি, পিবিআই, মুকসুদপুর সার্কেল, জুডিশিয়াল তদন্ত ও গোপালগঞ্জ সদর সার্কেলের সাতজন তদন্তকারী কর্মকর্তা এ ক্লু-লেস হত্যা মামলাটি তদন্ত করেন। সর্বশেষ তদন্ত কর্মকর্তা গোপালগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন দুইজন আসামিকে গ্রেপ্তার করে এবং এ মামলার প্রকৃত রহস্য উদঘাটন করে তিনজন আসামির বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেছেন।

চার্জশিটে উল্লেখ করা হয়, হত্যাকাণ্ডের চার বছর আগে থেকেই প্রভাংশু ওই দোকানে কর্মচারী ছিলেন। কর্মচারী থাকার সুবাদে দোকান মালিক সুধীর কুমার গৌতমের বাড়িতেই তার তিনবেলা খাওয়া-দাওয়া ও আসা যাওয়া ছিল। এরই মধ্যে দোকান মালিকের স্ত্রী বা বোনের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিষয়টি মেনে নিতে না পেরে দোকান মালিক সুধীর কুমার গৌতম ও তার বেয়াই দেবাশীষ বিশারদ ও আরেক আসামি সুশীল দাসকে নিয়ে  ১৫ মার্চ গভীর রাতে দোকানের মধ্যেই প্রভাংশুকে ঘুম থেকে ডেকে হাত-পা বেঁধে শ্বাসরোধে হত্যা করে। কৌশলে কিছু ওষুধপত্র এলোমেলো ছিটিয়ে রাখে এবং অজ্ঞাত চোর বা ডাকাত হত্যা করেছে বলে প্রচার  চালায় আসামিরা।

জেবি

RTV Drama
RTVPLUS