logo
  • ঢাকা বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

নবজাতককে হত্যার ঘটনায় বাবা জেলে 

  বাগেরহাট প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

|  ২০ নভেম্বর ২০২০, ১১:৪৭
Father jailed, for killing newborn, rtv news
বাগেরহাটে নবজাতককে হত্যার ঘটনায় জড়িত বাবা সুজন খান
বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলায় ঘুমন্ত মায়ের কোল থেকে শিশু চুরি ও হত্যার ঘটনায় নবজাতকের বাবা সুজন খানকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে গ্রেপ্তার হওয়া সুজন খানকে বিকেলে বাগেরহাটের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সমির মল্লিকের আদালতে হাজির করা হলে, আদালতের বিচারক তাকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। একইসঙ্গে পুলিশের করা সাত দিনের রিমান্ড আবেদনের শুনানি আগামী রোববার অনুষ্ঠিত হবে।

তবে লাশের ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক বলছেন, ভারী কোনও বস্তু দিয়ে মাথায় আঘাতের কারণে সোহানার মৃত্য হয়েছে।

মোরেলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম সন্ধ্যা সাতটায় এই প্রতিবেদককে জানান, পরিবারের সদস্যরা এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকতে পারে বলে প্রথম থেকেই সন্দেহ করে আসছিল পুলিশ। বুধবার বিকেলে ময়নাতদন্ত শেষে ১৭ দিন বয়সী নবজাতক সোহানার দাফন সম্পন্ন হয়।

এরপর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শিশুটির বাবা, চাচা ও ফুফাকে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে নিহত শিশুটির বাবা সুজন খানকে (৩০) গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে আটক করা হয়।

অবশ্য পুলিশ শিশুটির কাকা রিপন খান (২৮) ও ফুফা হাসিবকে (২৮) বৃহস্পতিবার সকালে আটক বলে দাবি করলেও দুপুরে বাগেরহাটের পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে নিহতের বাবা সুজন খানকে আদালতে ও অপর দুইজন বাদীর জিম্মায় দেয়ার নির্দেশ দেন। ওই দুইজনের ডিএনএ পরীক্ষার জন্য আদালতে আবেদন করা হবে বলে জানান। 

এদিকে বাগেরহাটের সিভিল সার্জন ডা. কেএম হুমায়ুন কবির জানান, ১৭ দিন বয়সী নবজাতক সোহানার ময়নাতদন্ত করা চিকিৎসরা তাকে জানিয়েছে, শিশুটির মাথায় আঘাতের চিহ্ন ছিল। পরীক্ষা করে দেখা গেছে আঘাতের ফলে মস্তিস্কে রক্তক্ষরণ হয়েছে। এ কারণে শিশুটির মৃত্যু হয়েছে। লাশের পেটে অনেক পানি ছিল। ধারণা করা হচ্ছে মৃত্যুর পরে শিশুটির লাশ পুকুরে ফেলে দেয়া হয়। 

তবে মোরেলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম ও মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা ( ওসি তদন্ত) ঠাকুর দাশ কিভাবে ও কি কারণে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে রাজি হননি।

গেলো রোববার মধ্য রাতের কোনও একসময় মোরেলগঞ্জ উপজেলার গাবতলা গ্রামে সুজন খান ও শান্তা আক্তার দম্পতির সন্তান সোহানা আক্তারকে ঘুমন্ত মায়ের কোল থেকে চুরি করা হয়। ঘটনার পর থেকে শিশুটিকে উদ্ধারে পুলিশ অভিযান চালাতে থাকে। সোমবার রাতে শিশুটির দাদা আলী হোসেন খান বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামি করে মোরেলগঞ্জ থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেন। ঘটনার তিন দিন পর তাদের বাড়ির পাশের একটি পুকুর থেকে সোহানার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

জেবি

RTVPLUS
bangal
corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ৪৫১৯৯০ ৩৬৬৮৭৭ ৬৪৪৮
বিশ্ব ৬০৩২৫২৬৯ ৪১৭২৯৫৩৩ ১৪১৮৯৯২
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • দেশজুড়ে এর সর্বশেষ
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়