logo
  • ঢাকা সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

আরটিভি নিউজ

  ১৮ নভেম্বর ২০২০, ২০:৫২
আপডেট : ১৮ নভেম্বর ২০২০, ২১:০০

ইতালি যেতে আগ্রহীদের দালাল হতে সাবধান: মন্ত্রণালয়

Beware of brokers who want to go to Italy
প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়
মোট ২৫ টি দেশ থেকে ৩০ হাজার ৮৫০ জন মৌসুমী ও স্থায়ী কর্মী নেবে ইতালি। এই ২%টি দেশের মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশও। ইতালি যাওয়ার জন্য আবেদন প্রক্রিয়া চলবে চলতি বছরের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

করোনা পরবর্তী অর্থনীতিকে শক্তিশালী রাখতে যে ৩০ হাজার ৮৫০ জন বিদেশি কর্মী নেবে ইতালি তাদের মধ্যে ১২ হাজার ৮৫০ জনকে স্থায়ীভাবে ও বাকি ১৮ হাজারকে অস্থায়ী বা খণ্ড-কালীন কাজের সুযোগ দেওয়া হবে। খণ্ড-কালীন নিয়োগপ্রাপ্ত নির্ধারিত সময় শেষে দেশে ফিরতে হবে।

অনুমোদিত এই প্রক্রিয়ার মাঝেও বেড়েছে দালালদের উৎপাত। এরিমধ্যে বেশ কিছু দালাল চক্র বড় অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে নিচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে ইতালি পাঠানোর প্রতিশ্রুতি দিয়ে। তাই ইতালি যাবার জন্য যারা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে তাদের এমন কোনো ব্যক্তির সঙ্গে আর্থিক লেনদেন না করার অনুরোধ জানিয়েছে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়।

বুধবার প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় থেকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ইতালি যাবার ক্ষেত্রে এই সেক্টরে নিয়োগকর্তা রয়েছেন। যারা সরাসরি কর্মী সিলেক্ট করবেন। এক্ষেত্রে কোনো এজেন্সি বা দালালের মাধ্যমে ইতালি যাওয়ার সুযোগ নেই। এরপরও অনলাইনের বিভিন্ন মাধ্যমে কর্মী পাঠানোর বিজ্ঞপ্তি দিয়ে হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে লাখ লাখ টাকা।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ইতালিস্থ নিয়োগকারী যাদের মনোনীত করবেন তাদের নাম, পাসপোর্ট নম্বর স্থানীয় প্রশাসকের কার্যালয়ে পাঠানো হবে অনাপত্তিপত্রের জন্য। এরপর সব বিবেচনা করে স্থানীয় প্রশাসন অনুমতি দিলে তাদের অনাপত্তিপত্র বাংলাদেশে থাকা ইতালিস্থ কর্মীর কাছে পাঠানো হবে। এরপর মনোনীত ব্যাক্তিকে ভিসার জন্য ইতালি দূতাবাসে আবেদন করতে হবে। ভিসা মঞ্জুর হলে তবেই যাওয়া যাবে ইতালি।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, আবেদনের সময় সরকার নির্ধারিত এক হাজার ৬০০ টাকা (১৬ ইউরো) ফি দিতে হবে। হেল্প ডেস্ক এর সহায়তা নিলে বাড়তি ৫০ থেকে ১০০ ইউরো (পাঁচ থেকে ১০ হাজার টাকা) ফি লাগবে। এছাড়া অন্য কোনো খরচ নেই।

এমআর/

RTVPLUS