logo
  • ঢাকা সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ১৭ নভেম্বর ২০২০, ১৭:১৬
আপডেট : ১৭ নভেম্বর ২০২০, ১৭:২৮

বালু উত্তোলন করতে গিয়ে শ্রমিক নিখোঁজ

Workers go missing, while extracting, rtv news
চট্টগ্রাম
সীতাকুণ্ড উপজেলায় মীরসরাইয়ে হিঙ্গুলী খালের মীরসরাই ও  ফেনী  নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন চলছে। এ সময় বালি উত্তোলন করতে গিয়ে ইকবাল হোসেন নামে (২০) এক শ্রমিক নিখোঁজ হয়েছেন। আজ মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) সকাল ১০ টার সময়  উপজেলার হিঙ্গুলী ইউনিয়নের মধ্যম আযম নগরে হিঙ্গুলী খালের ফেনী নদীর সংযোগস্থলে এই ঘটনা ঘটে।

বালি তোলার সময় ইকবাল ড্রেজার থেকে পড়ে নিখোঁজ হন। ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে মামলা ও জরিমানা করলেও বালু উত্তোলন বন্ধ হচ্ছে না। যেসব স্থানে বালু উত্তোলন হচ্ছে, তার পাশে কয়েকশ’ একর আবাদি জমি। এভাবে বালু উত্তোলন করলে কৃষিজমি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে মানুষ নিঃস্ব হবে খুব দ্রুত। ফেনী নদীর ভাঙন অব্যাহত রয়েছে কয়েক দশক ধরে। একের পর এক জমি, ঘর-বাড়ি, রাস্তাঘাট, স্থাপনা সবই যাচ্ছে নদীগর্ভে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, এই বিষয়ে প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিকে জানানো হলেও কোনও পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়নি। দীর্ঘদিন যাবত বালু উত্তোলনের প্রায় দু’শত একর ফসলি জমি ইতোমধ্যে নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। বিস্তীর্ণ এলাকা নতুন করে ভাঙনের মুখে পড়েছে। যে কারণে দিন দিন ছোট হয়ে আসছে নদীর পাড়ের জনবসতি। দুই নম্বর হিঙ্গুলী ইউনিয়নের মধ্যম আজম নগর এলাকায় হিঙ্গুলী খালের মুখে ফেনী নদীর মোহনা ট্রলারে কাটা ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে বালু তোলা হচ্ছে।

এলাকার প্রভাবশালী ব্যক্তিরা এই বালু উত্তোলনের সঙ্গে জড়িত বলে স্থানীয়রা কিছু বলার সাহস পায় না। ২০১০ সালের বালুমহল আইনে বলা আছে, বিপণনের উদ্দেশে কোনও উন্মুক্ত স্থান, চা-বাগানের ছড়া বা নদীর তলদেশ থেকে বালু বা মাটি উত্তোলন করা যাবে না। এছাড়া সেতু, কালভার্ট, ড্যাম, ব্যারাজ, বাঁধ, সড়ক, মহাসড়ক, বন, রেললাইন ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ সরকারি-বেসরকারি স্থাপনা অথবা আবাসিক এলাকা থেকে বালু ও মাটি উত্তোলন নিষিদ্ধ।

মীরসরাইয় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মিনহাজুর রহমান অল্প কিছুদিনের মধ্যে অবৈধ বালু উত্তোলনের ব্যাপারে অভিযান পরিচালনা করা হবে। নিহত ইকবাল মীরসরাই উপজেলার করেরহাট ইউনিয়নের দক্ষিণ আলিনগর এলাকার মো. আলাউদ্দিনের ছেলে বলে জানা যায়।

জেবি/এম 

RTVPLUS