logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

বেড়া উপজেলা নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীর গাড়ি বহরে হামলা, ৩০ গাড়ি ভাংচুর

বেড়া উপজেলা নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীর গাড়ি বহরে হামলা, ৩০ গাড়ি ভাংচুর
পাবনার বেড়া উপজেলা নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী রেজাউল হক বাবুর গাড়ি বহরে হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ১৫ জন আহত ও ৩০টি গাড়ি ভাংচুর করা হয়েছে। এ ঘটনার পর এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। শনিবার সন্ধ্যায় এই হামলার ঘটনা ঘটে।

বেড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রশিদ দুলাল জানান, বেড়া উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল কাদেরের মৃত্যুতে নির্বাচনের ঘোষণা হয়। অনেকেই নৌকার প্রার্থী হওয়ার আবেদন করলেও দলনেত্রী শেখ হাসিনার জুরিবোর্ড রেজাউল হক বাবুকে নৌকার প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দেন। শনিবার সন্ধ্যায় মনোনয়ন পত্র নিয়ে বাবু ঢাকা থেকে কাজিরহাট নদীপথ দিয়ে পাবনার বেড়ায় আসেন। এসময় হাজার হাজার মানুষ তাকে স্বাগত জানান। বাবু লোকজন ও গাড়ি বহর নিয়ে প্রয়াত চেয়ারম্যান আব্দুল কাদেরের কবর জিয়ারত করতে গেলে বেড়া সিএন্ডবি বাস স্ট্যান্ড মোড়ে সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শামসুল হক টুকু ও তার ছোট ভাই আব্দুল বাতেনের ক্যাডার বাহিনী তার গাড়ি বহরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও মারধর করে। এসময় স্বাধীন, আজাদ, মনছের, জুলহাস, মিরাজ ও আলফুসহ ১৫ জন গুরুতর আহন হন। তাদের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

এ ব্যাপারে বেড়া সার্কেল অফিসার সহকারী পুলিশ সুপার জিল্লুর রহমান জানান, রেজাউল হক বাবুর গাড়ি বহরে দুর্বৃত্তরা হামলা  চালিয়েছে। বিষয়টি নিয়ে তারা জোর তদন্ত এবং দোষীদের গ্রেপ্তারের জন্য ব্যবস্থা নিচ্ছেন।

এ বিষয়ে পাবনা-১ আসনের এমপি শামসুল হক টুকুর মোবাইল ফোনে বারবার যোগাযোগ করেও তার মতামত নেয়া সম্ভব হয়নি।

নৌকার প্রার্থী রেজাউল হক বাবু বলেন, আওয়ামী লীগ একটি বড় রাজনৈতিক সংগঠন। নৌকার প্রার্থী হতে অনেকেই চাইবেন এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু শেখ হাসিনা মনোনয়ন দেয়ার পর আক্রোশ থাকা কাম্য নয়। সন্ত্রাসী কায়দায় নয়, আমি মানুষের দোয়া ও ভোটে নির্বাচন করতে চাই।

এসএস

RTVPLUS