logo
  • ঢাকা বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

গাজীপুরে গরু ছিনতাইয়ের টাকায় ৮তলা ভবন তৈরির অভিযোগ

  কালিয়াকৈর প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

|  ০৮ নভেম্বর ২০২০, ১৬:৩৯
At the accused's house
অভিযুক্তের বাড়ি
গাজীপুরের কালিয়াকৈরে দীর্ঘদিনের গরু চুরি ছিনতাই ও ডাকাতির টাকায় জমি ও বিলাস বহুল ৮ তলা ভবনের একটি বাড়ি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগী একাধিক পরিবার সূত্রে জানা যায়, কালিয়াকৈর উপজেলার চাতৈলবিটি এলাকার সবুর উদ্দিনের ছেলে লোকমান হোসেন পেশায় ছিলেন পোলট্রি মুরগি বিক্রেতা। ব্যবসায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে তিনি পেশা পরিবর্তন করে কসাইয়ের কাজ শুরু করেন। পরে লোভে পড়ে অতিরিক্ত মুনাফার আশায় গরু চুরি ট্রাকসহ গরু ছিনতাই করে মাংস বিক্রি শুরু করে। 

এছাড়াও দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে তিনি ও তার সহযোগীরা গরু চুরি ট্রাকসহ গরু ছিনতাই ও ডাকাতি করে এলাকায় গরুর ব্যবসা করে আসছেন। এভাবে দীর্ঘদিন চুরি ছিনতাই লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে মুলহোতা লোকমান।

অবৈধ উপায়ে অর্জিত টাকা দিয়ে তিনি বাড়ির পাশে আমীন মডেল টাউনে দুটি প্লটে ১০ শতাংশ জমি কিনেন। যার বর্তমান মূল্য প্রায় এক কোটি টাকা। শুধু তাই নয় তিনি সেখানে ৮তলা ভবন নির্মাণ করে  বিলাস বহুল জীবন যাপন করে আসছে।

এত টাকা মালিক হলেও তিনি চুরি  ছিনতাইয়ের পেশাটি ছাড়তে পারেনি। প্রতি রাত ২টা থেকে ৩টার দিকে ১০-১২টি গরু অজ্ঞাত ট্রাকে ভরে নিয়ে আসে। সে গরুগুলো তার ওই বিলাস বহুল বাড়ির পাশেই রাখেন। রাতেই কম দামে এসব গরু বিক্রি করে দেওয়া হয়। একটু কম দামে গরু কিনতে স্থানীয় খামারী ও কসাইরা তার কাছ থেকে গরু কিনে নিয়ে যায়। 

সবশেষ নরসিংদীর রায়পুর থানায় ট্রাকসহ গরু ছিনতাইয়ের একটি মামলার আসামি ধরতে গাজীপুরের কালিয়াকৈরে অভিযান চালিয়েছে রায়পুরা থানা পুলিশ।
গত ৫ নভেম্বর রাতে রায়পুরা থানা, আশুলিয়া থানা ও গাজীপুর সদর থানার পুলিশ ওই আমিন মডেল টাউনে অভিযান চালায়। 

অভিযান চালিয়ে ওই চক্রের দুই সদস্য সেলিম ও আরিফ খান সুইটকে গ্রেপ্তার করা হলেও মুলহোতা লোকমান কৌশলে পালিয়ে যায়। এসময় ছিনতাইয়ের মুলহোতা লোকমানের বিলাস বহুল বাড়ি থেকে ২টি গরু পাশের বাড়ি থেকে ৩টি গরু উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয়দের অভিযোগ, মুলহোতা লোকমান, সেলিম, সুইটসহ বেশ কয়েকজন প্রতি রাতেই এখানে ১০-১২টি গরু নিয়ে আসে। গরু কেনার ভুয়া কাগজপত্র দেখিয়ে ওই রাতেই গরুগুলো কম দামে বিক্রি করে দেয়। 
চক্রটি নেপালিয়ান গরুসহ বিভিন্ন স্থান থেকে গরু চুরি করে। প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে গরু চুরি ও ট্রাকসহ গরু ছিনতাই করে এভাবেই লাখ লাখ টাকা বানিয়েছেন লোকমান। 
ওই রাতে চক্রের ৫ সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হলেও মুলহোতা লোকমান রয়েছে ধরা-ছোঁয়ার বাইরে। 

আমিন মডেল টাউনের মার্কেটিং সহকারী সাইদুর রহমান জানান, লোকমানের কাছ থেকে তিনটি গরু কিনেন। সে গরুসহ মোট ৫টি গরু ওইদিন রাতে পুলিশ নিয়ে গেছে। এছাড়া সেলিম ও সুইট নামে দুজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

সাইদ হোসেন নামের একজন স্থানীয় বলেন, আমার মেয়ের জামাই সুইটও অনেকের মতো লোকমানের কাছ থেকে গরু কিনেছে। যে বিক্রি করেছে তারে ধরতে পারেননি পুলিশ। আমার মেয়ের জামাইকে ধরে নিয়ে গেছে।
স্থানীয় ইউপি সদস্য আয়নাল হোসেন জানান, ওইদিন রাতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে দুজনকে গ্রেপ্তার ও ৫টি গরু উদ্ধার করে নিয়ে গেছে। তবে লোকমান কিভাবে হঠাৎ করে এত টাকার মালিক হল তা জানা নেই। 
এবিষয়ে অভিযুক্ত লোকমান হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগ করতে তার বাড়ি গেলেও তাকে পাওয়া যায়নি। এছাড়াও মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

রায়পুরা থানার উপপরিদর্শক এসআই (নিরস্ত্র) কাজী ইকবাল হোসেন জানান, ট্রাকসহ গরু ছিনতাইয়ের মামলায় গাজীপুরের কালিয়াকৈর থেকে দুজনসহ ৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ সময় লোকমানের বাসা থেকে দুটিসহ ৫টি গরু উদ্ধার করা হয়। তবে গ্রেপ্তারকৃতদের জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। 

কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনোয়ার হোসেন চৌধুরী জানান, আমি বিষয়টি শুনেছি ওই থানার পুলিশ এসে দুজনকে গ্রেপ্তার ও গরু উদ্ধার করে নিয়ে গেছে। তবে লোকমানের বিরুদ্ধে এরকম অভিযোগ থাকলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জিএম 

RTVPLUS
bangal
corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ৪৫১৯৯০ ৩৬৬৮৭৭ ৬৪৪৮
বিশ্ব ৬০৩২৫২৬৯ ৪১৭২৯৫৩৩ ১৪১৮৯৯২
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • দেশজুড়ে এর সর্বশেষ
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়