logo
  • ঢাকা বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

৪৫ বছরের ইউপি চেয়ারম্যানই করলেন বাল্যবিবাহ

  স্টাফ রিপোর্টার, কুড়িগ্রাম

|  ০২ নভেম্বর ২০২০, ১৮:৫৭ | আপডেট : ০২ নভেম্বর ২০২০, ১৯:০১
৪৫ বছরের ইউপি চেয়ারম্যানই করলেন বাল্যবিবাহ
৪৫ বছরের ইউপি চেয়ারম্যানই করলেন বাল্যবিবাহ
রক্ষক যখন ভক্ষক! একজন জনপ্রতিনিধি যেখানে বাল্যবিবাহ মুক্ত করবেন, সেটা না করে নিজেই করলেন বাল্যবিবাহ। 

রোববার (১ নভেম্বর) রাতে কুড়িগ্রামের উলিপুরের বুড়াবুড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে বিয়ে করেন। ৪৫ বছর বয়সের চেয়ারম্যান কিভাবে নবম শ্রেণির ছাত্রীকে  বিয়ে করেন তা নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। জানা যায়, ৩য় বারের মতো বিয়ে করায় ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছেন চেয়ারম্যান। 

সরকার বাল্যবিবাহ মুক্ত ঘোষণা করার পরও একজন ইউপি চেয়ারম্যান নিজেই কিভাবে বাল্যবিবাহ করেন তা নিয়ে এখন সমালোচনার ঝড় উঠেছে। 

এলাকাবাসীরা জানান, ওই ইউনিয়নের দোলন গ্রামের এক প্রতিবন্ধীর নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া মেয়ের উপর নজর পড়ে বুড়াবুড়ি ইউপি চেয়ারম্যান আবু তালেব সরকারের। এরপর ওই শিক্ষার্থীকে নানাভাবে ফুঁসলিয়ে তার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। পরবর্তীতে হতদরিদ্র মেয়েটির পরিবারকে আর্থিক সহায়তার বিভিন্ন ধরনের প্রলোভন দেখান চেয়ারম্যান।

অভিযোগ রয়েছে, এক স্ত্রী ও কলেজ পড়ুয়া এক কন্যাসহ এর পূর্বেও ইউপি চেয়ারম্যান আবু তালেব সরকার আরও একটি বিয়ে করেন। এনিয়ে তার তৃতীয় বিয়ে অনুষ্ঠিত হলো। তৃতীয় বিয়ের ছবি ফেসবুক ছড়িয়ে পড়ায় এলাকায় সমালোচনার ঝড় উঠে। 
একজন জনপ্রতিনিধি যেখানে বাল্যবিবাহ মুক্ত করবেন, সেটা না করে নিজেই বাল্যবিবাহ করায় জনমনে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখা যায়। 

এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান আবু তালেব সরকারের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করলে তিনি ফোন ধরেননি। 

এ বিষয়ে উলিপুর উপজেলা ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তা আশরাফুল আলম রাসেল বলেন, বাল্যবিবাহের খবরটি শুনেছি এবং আরও খবর নেয়া হচ্ছে। সত্যতা পেলে ও লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জিএম/এসএস 

RTVPLUS
bangal
corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ৪৫১৯৯০ ৩৬৬৮৭৭ ৬৪৪৮
বিশ্ব ৬০৩২৫২৬৯ ৪১৭২৯৫৩৩ ১৪১৮৯৯২
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • দেশজুড়ে এর সর্বশেষ
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়