logo
  • ঢাকা রোববার, ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ৩ মাঘ ১৪২৭

সিএনজি চালকের সহযোগিতায় তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ

সিএনজি চালকের সহযোগিতায় তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ
ফাইল ছবি
মৌলভীবাজারের বড়লেখায় সিএনজি চালিত অটোরিকশা চালকের সহযোগিতায় এক তরুণীকে (১৮) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় পুলিশ দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

শুক্রবার (৯ অক্টোবর) সকাল ৭টার দিকে উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়নের আতুয়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগ। এ ঘটনায় তরুণী বাদী হয়ে বড়লেখা থানায় ধর্ষণ ও সহযোগিতার অভিযোগে ২ জনের নামে মামলা করেন।

মামলার পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে সন্ধ্যায় শাহবাজপুর বাজারের পাহারাদার ও এক সিএনজি চালককে গ্রেপ্তার করেছে। 
গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, বড়লেখা উপজেলার উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়নের বাদেপুকুরিয়া গ্রামের মৃত রফিক উদ্দিনের ছেলে দেলোয়ার হোসেন (২৫) ও উপজেলার চুকারপুঞ্জি গ্রামের মাসুক মিয়ার ছেলে আলী আহমদ (১৮)।

এদিকে শনিবার (১০ অক্টোবর) সকালে ঘটনার শিকার ওই তরুণীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ওই তরুণী ছোটবেলা থেকে নানা বাড়িতে বসবাস করেন। বৃহস্পতিবার তিনি খালার বাড়ি বেড়াতে যান। বৃহস্পতিবার রাতেই নানা বাড়ি থেকে খবর আসে নানা অসুস্থ। নানা অসুস্থের খবর পেয়ে শুক্রবার সকালে খালার বাড়ি থেকে বাড়ির উদ্দেশে রওয়ানা হন। শাহবাজপুর বাজারে আসার পর তরুণীর খালাতো ভাই সিএনজি চালক আলী আহমদের গাড়িতে তুলে দেন। পথে সিএনজি চালক আলী শাহবাজপুর বাজারের পাহারাদার দেলোয়ারকে উঠান। একপর্যায়ে গাড়িতে দেলোয়ার তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টা চালান। এ অবস্থায় তরুণী গাড়ি থেকে নামার চেষ্টা করলে সিএনজি চালকের সহযোগিতায় দেলোয়ার জোর করে তাকে আতুয়া এলাকার নির্জন স্থানে নিয়ে যান। পরে সেখানে দেলোয়ার তাকে ধর্ষণ করেন। এসময় স্থানীয় ইসলামপুর এলাকা থেকে একটি মোটরসাইকেলে লোকজন আসলে তরুণীকে রেখে দুজন পালিয়ে যায়। নানা বাড়ি না যাওয়ায় তাকে খুঁজতে গিয়ে খালাতো ভাই ও স্থানীয় লোকজন আতুয়া এলাকা থেকে তাকে উদ্ধার করেন।

আরও পড়ুন: 
ধর্ষণের শিকার মেয়েকে জঙ্গল থেকে উদ্ধার করলেন মা

বড়লেখা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার বলেন, গ্রেপ্তার দুজনকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। শনিবার সকালে ওই তরুণীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এসএস

RTV Drama
RTVPLUS