সালিসের টাকা পেল না দলবেঁধে ধর্ষণের শিকার কিশোরী

প্রকাশ | ১০ অক্টোবর ২০২০, ১০:৪১ | আপডেট: ১০ অক্টোবর ২০২০, ১২:০৯

স্টাফ রিপোর্টার, লালমনিরহাট
ফাইল ছবি

লালমনিরহাটের কালিগঞ্জ উপজেলায় এক কিশোরীকে দলবেঁধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় স্থানীয়ভাবে বিষয়টি ধামাচাপা দিতে অভিযুক্তদের শালিস বৈঠকের মাধ্যমে জরিমানা করা হয়েছে। তবে সে টাকাও এখন মাতব্বরদের পকেটে বলে জানা গেছে। শুক্রবার বিকেলে ওই কিশোরীকে উদ্ধার করেছে কালিগঞ্জ থানা পুলিশ। 

পুলিশ ও ভুক্তভোগী পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গেল সোমবার   (৫ অক্টোবর) রংপুরের কাউনিয়া উপজেলা থেকে মামার বাড়ি থেকে বাবার সঙ্গে লালমনিরহাটের সীমান্তবর্তী পাটগ্রামে খালার বাড়িতে বেড়াতে আসে এক কিশোরী (১৬)। সেখান থেকে পরদিন সন্ধ্যায় লালমনিরহাটগামী আন্তঃনগর করতোয়া এক্সপ্রেস ট্রেনে কাউনিয়ার উদ্দেশে রওনা হয়। ট্রেনটি কালিগঞ্জের কাকিনা রেল স্টেশনে দাঁড়ালে ওই কিশোরী ট্রেন থেকে নেমে নাস্তা করতে পার্শ্ববর্তী একটি হোটেলে যায়। এ সময় কাকিনা স্টেশনে নিজেকে রকি পরিচয় দিয়ে এক ছেলে জানতে চাইলে ওই কিশোরী কাউনিয়া যাচ্ছে বলে জানায়। তখন যুবক রকি নিজেকে কাউনিয়ার বাসিন্দা পরিচয় দেয়। এরই মধ্যে ট্রেনটি স্টেশন ছেড়ে চলে গেলে রকি অটো রিকশায় করে কাউনিয়া যাবেন এবং অটোরিকশায় তাকে নিজ বাড়িতে পৌঁছে দেয়ার আশ্বাস দেন। পরে একটি অটোরিকশা করে রকি মেয়েটিকে নিয়ে কাউনিয়া যাওয়ার কথা বলে বিভিন্ন সড়ক ঘুরে মধ্যরাতে একটি সেচ পাম্পের নির্জন ঘরে নিয়ে যান। সেখানে রকি ও তার ৩ সহযোগীসহ পালাক্রমে ধর্ষণ করেন। পরদিন বুধবার ৭ অক্টোবর সকালে মুখ না খোলার শর্তে কিশোরীকে মুক্তি দেন ওই চার যুবক। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় অসুস্থ ওই কিশোরী এক গ্রাম পুলিশের বাড়িতে আশ্রয় নেয়। 

আরও পড়ুনঃ

জমজ বোনসহ ৩ মেয়েকে ধর্ষণ করে বাড়িওয়ালা 

মেয়েকে দীর্ঘদিন ধরে ধর্ষণ করছিল নাটোরের এই সন্ন্যাসী! (ভিডিও)

মাদরাসাছাত্রীকে দলবেঁধে ধর্ষণ, আটক ২

গৃহবধূকে সিএনজিতে তুলে  রাতভর গণধর্ষণ

বিষয়টি নিয়ে বৃহস্পতিবার ৮ অক্টোবর রাতে স্থানীয় মাতব্বররা বৈঠকে বসে ধর্ষণকারীদের শনাক্ত করে মোটা অংকের টাকা জরিমানা করে। তবে কিশোরীর অভিযোগ সে টাকা ওই কিশোরীকে না দিয়ে নিজেদের মধ্যে ভাগাভাগি করে নেন তারা। জরিমানার টাকা কিশোরীকে না দিয়ে উল্টো তাকে হুমকি দিয়ে পথ খরচ বাবদ ২ হাজার টাকা দিয়ে মাতব্বররা তাকে বাড়ি পাঠিয়ে দেয়। পরে শুক্রবার ৯ অক্টোবর দুপুরে স্থানীয়দের মাধ্যমে ওই কিশোরী কালিগঞ্জ প্রেসক্লাবে আশ্রয় নেয় এবং  বিষয়টি থানা পুলিশকে অবগত করলে পুলিশ এসে ভুক্তভোগী ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে যান। 

কালিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) ফরহাদ হোসেন জানান, মেয়েটির দেয়া তথ্যমতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। অভিযুক্তদের ধরতে মাঠে কাজ করছে পুলিশ।

এসএস