শেরপুরে নদী ভাঙনে হুমকির মুখে ৩ শতাধিক পরিবার

প্রকাশ | ০৬ অক্টোবর ২০২০, ২১:১৭

স্টাফ রিপোর্টার, শেরপুর
শেরপুরে নদী ভাঙন

শেরপুরের নকলা উপজেলার দেড় কিলোমিটার জুড়ে মৃগী নদীর ভাঙনে একমাত্র চলাচলের রাস্তাটি নদীগর্ভে বিলীন হতে চলেছে। এতে হুমকির মুখে পড়ছে প্রায় তিন শতাধিক পরিবার। ড্রেজার মেশিন বসিয়ে অপরিকল্পিত ও অবৈধ উপায়ে বালু উত্তোলনরে ফলে এই ভাঙন ভয়াল রূপ ধারণ করেছে বলে অভিযোগ করেন এলাকাবাসী। 

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, গত কয়েকদিনের ভারি বর্ষণে রাস্তাটি ভেঙে নদীগর্ভে বিলীন হওয়ার পথে, ফলে যানবাহন ও মানুষের চলাচলে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। বন্যা ও ভারি বর্ষণে দু’দফার নদী ভাঙনে দেড় কিলোমিটার জুড়ে এ এলাকায় বসবাসরত তিন শতাধিক পরিবারের প্রায় সাড়ে তিন হাজার মানুষ এখন আতঙ্ক নিয়ে দিন পার করছেন। 

স্থানীয় কৃষকেরা জানান, নদী তীরবর্তী এ রাস্তাটির প্রয়োজনীয় সংস্কারের অভাবে তাদের উৎপাদিত কৃষি পণ্য বাজারজাতকরণে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। বারবার প্রতিশ্রুতি দেয়া হলেও দীর্ঘসময়েও এটির সংস্কারে কোনও কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া হয়নি। 

এলাকাবাসী মাহবুবর রহমান জানান, প্রায় পাঁচ মাস আগে চিকারবাড়ি ঘাট ও আশপাশের এলাকায় ছোট-বড় মিলিয়ে দশটি ড্রেজার মেশিন বসিয়ে অপরিকল্পিত ও অবৈধ উপায়ে বালু উত্তোলন করায় এই ভাঙন ভয়াল রূপ ধারণ করেছে। নদী ভাঙনের ফলে ওই এলাকার প্রায় ১৫ পরিবারের কয়েক একর ফসলি জমি, বাড়ি-ঘর ও গাছ-পালা নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে। 

চন্দ্রকোনা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সাজু সাঈদ সিদ্দিকী বলেন, ওই এলাকার বাড়ি-ঘর, গাছ-পালা, ফসলি জমি ও চলাচলের একমাত্র সড়কটি রক্ষা এবং নদী ভাঙনরোধকল্পে  সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে কথা হয়েছে। অতি দ্রুতই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এসএস