ধর্ষণের মিথ্যা মামলা করায় নারীর ৫ বছরের জেল

প্রকাশ | ০৬ অক্টোবর ২০২০, ১৮:০৭ | আপডেট: ০৬ অক্টোবর ২০২০, ১৮:৩১

জয়পুরহাট প্রতিনিধি,  আরটিভি নিউজ
মিথ্যা ধর্ষণ মামলা করার অভিযোগে পাঁচ বছরের দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি মুন্নুজান বিবি

জয়পুরহাট সদর উপজেলার বিষ্ণপুর গ্রামে ধর্ষণের মিথ্যা মামলা করার দায়ে রবিউল ইসলামের স্ত্রী মামলার বাদী মুন্নুজান বিবিকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

গতকাল সোমবার (৫ অক্টোবর) বিকেলে জয়পুরহাটের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. রুস্তম আলী এক জনাকীর্ণ আদালতে এ রায় দেন। 

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, গত ১ ফেব্রুয়ারি আসামি একই গ্রামের মারুফসহ চারজন যুবক বাদীর কন্যা অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী মাদরাসায় যাওয়ার সময় তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে। এর পরের দিন বাদী জয়পুরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে  মামলা করলে বিচারক পুলিশকে মামলার তদন্ত করার নির্দেশ দেয়।

আদালতে আইনজীবীদের পাল্টাপাল্টি যুক্তিতর্ক এবং বাদী ও সাক্ষীদের জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে জানা যায়, পূর্ব শত্রুতার জেরে এই মামলার আসামিদেরকে জব্দ করতেই এমন মিথ্যা মামলা করা হয়েছে।

ধর্ষণের এমন মিথ্যা মামলা করায় মুন্নুজানকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড ও একইসঙ্গে মারুফ হোসেনসহ বাকি আসামিদের এ মামলা থেকে অব্যাহতির আদেশ দেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক।

এ মামলার বাদীপক্ষের আইনজীবী হিসেবে মামলা পরিচালনা করেন অ্যাডভোকেট দেলোয়ার হোসেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী (পিপি) অ্যাডভোকেট নৃপেন্দ্রনাথ মণ্ডল আরটিভি নিউজকে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন।

জেবি/এম