বড় বোনকে ধর্ষণের তিন বছর পর ছোট বোনকে ধর্ষণ

প্রকাশ | ০৫ অক্টোবর ২০২০, ১৬:৪৫ | আপডেট: ০৫ অক্টোবর ২০২০, ১৭:১০

রাঙামাটি প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ
অভিযুক্ত হারুনুর রশিদ

বৃদ্ধের লালসার শিকার কিশোরী দুই বোন। এই ঘটনায় অভিযুক্ত ধর্ষক বৃদ্ধ হারুনুর রশিদকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলার ইসলামপুরের মধ্য-পাড়া এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। 

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ১১ বছরের প্রতিবন্ধী কিশোরীকে রোববার সকালে ধর্ষণ করার অভিযোগ ওঠে মধ্য-পাড়া এলাকার আতাহার আলীর ছেলে হারুনুর রশিদ (৮০)। প্রতিবন্ধীর মা বাদী হয়ে নানিয়ারচর থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ ধর্ষক হারুনুর রশিদকে গ্রেপ্তার করে।

ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরীর মা জানান, তিন বছর আগে তার বড় মেয়েকে ধর্ষণ করে কৃষক হারুনুর রশিদ। সে সময় হাতেনাতে ধরাও পড়েন তিনি। তখন বড় মেয়ের বয়স ছিল ১০ বছর। সে সময় গ্রাম্য শালিসে বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়। ধর্ষককে দশ হাজার টাকা জরিমানাও করা হয়। সেই একই লোক গত রোববার সকালে বাসায় কেউ নেই জেনে তার ১১ বছরের প্রতিবন্ধী কিশোরীকেও ধর্ষণ করে। 

আরও পড়ুন: 

ভিডিও ধারণ করে দিনের পর ধর্ষণের শিকার স্কুলছাত্রীর সন্তান প্রসব

বখাটেদের প্রস্তাবে রাজি ছিলেন না ওই নারী, তাই ভিডিও ছেড়ে দেয়  

গৃহবধূকে শ্লীলতাহানির ভিডিও সরিয়ে নেয়ার নির্দেশ হাইকোর্টের

নোয়াখালীতে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন, ভিডিও ভাইরাল

ধর্ষণ বিরোধী বিক্ষোভ: শাহবাগে পুলিশের সঙ্গে বামজোটের ধস্তাধস্তি

জানা যায়, ধর্ষণের শিকার মেয়েটি বাক প্রতিবন্ধী, নিজে নিজে খেতে এবং হাঁটাচলাও করতে পারে না।  তার মা জানান, ঘটনার পর মেয়েকে প্রথমে নানিয়ারচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। 

স্থানীয় ইউপি সদস্য নুর ইসলাম জানায়, রোববার দুপুরে উপজেলা সদরে একটি অনুষ্ঠানে থাকাবস্থায় মোবাইলে ঘটনার কথা জানতে পারি। খবর নিয়ে বিষয়টি নিশ্চিত হই। এরমধ্যে ভিকটিমের পরিবারের পক্ষ থেকেও জানানো হলে তাদের নিয়ে থানায় গিয়ে মামলা দায়ের করি। 

নানিয়ারচর থানার এসআই রওশন জানায়, প্রতিবন্ধী কিশোরীর মা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯(১) ধারায় মামলা দায়ের করে। আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বর্তমানে তিনি জেল হাজতে রয়েছে।

জিএম/এসএস