Mir cement
logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

‘আমরা নই রাজন, আইনুল ও তারেক গৃহবধূকে ধর্ষণ করেছে’

'We are not Rajan, Ainul and Tareq, rtv news
আদালতে তোলা হচ্ছে গণধর্ষণ মামলার আসামি সাইফুর ও অর্জুনকে

সিলেটে এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে গণধর্ষণকাণ্ডে আদালতে হাজির এই মামলার প্রধান আসামি সাইফুর রহমান ও অর্জুন লস্কর জানিয়েছেন, আমরা নই রাজন, আইনুল ও তারেক গৃহবধূকে ধর্ষণ করেছে’।

আজ সোমবার দুপুর ১২ টার দিকে এই দুই আসামিকে সিলেট মহানগর হাকিম দ্বিতীয় আদালতে হাজির করা হয়।এ সময় বিচারক সাইফুর রহমানের আদালতে গণধর্ষণ মামলার আসামি সাইফুর ও অর্জুন ঘটনার সঙ্গে জড়িত নয় বলে দাবি করেন।

তবে এই মামলার প্রধান আসামি সাইফুর রহমান ও অর্জুন লস্কর আদালতে নিজেদের নির্দোষ দাবি করেছেন।

তারা বলেন, ‘আমরা ধর্ষণ করিনি। রাজন, আইনুল ও তারেক ওই গৃহবধূকে ধর্ষণ করেছে। ছাত্রলীগ নেতা তারেক এই মামলার এজাহারভুক্ত আসামি হলেও রাজন ও আইনুল আসামি নয়।

আরও পড়ুন:

তবে দেশ্যবাপী আলোচিত এই গণধর্ষণকাণ্ডে আদালতে হাজির করা দুই আসামির পক্ষে কোনও আইনজীবী দাঁড়ায়নি।

গতকাল রোববার দিনগত রাত একটার দিকে ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার কচুয়া নয়াটিলা এলাকা থেকে রাজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ এ সময় তাকে সহযোগিতা করায় আইনুল নামের আরেক যুবককেও গ্রেপ্তার করা হয়। এখন পর্যন্ত তারেককে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

আরও পড়ুন:

গেলো শুক্রবার এমসি কলেজে স্বামীর সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার হন এক গৃহবধূ। রাত সাড়ে আটটার দিকে স্বামীর কাছ থেকে ওই গৃহবধূকে জোর করে তুলে নিয়ে ছাত্রাবাসে ধর্ষণ করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এ সময় কলেজের সামনে তার স্বামীকে আটকে রাখে দুজন।

এ ঘটনায় ভিকটিমের স্বামী বাদী হয়ে শাহপরান থানায় মামলা করেছেন। মামলায় ছাত্রলীগের ছয় নেতাকর্মীসহ অজ্ঞাতনামা আরও তিনজনকে আসামি করা হয়েছে।

এ পর্যন্ত এজাহারভুক্ত চার আসামিসহ ছয়জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এখনও অধরা আসামি মাহফুজুর রহমান মাসুদ (২৫)। তারেকুল ইসলাম তারেক (২৮)।

আরও পড়ুন:

জেবি

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS