ইউএনও ওয়াহিদার মুখের সেলাই খোলা হয়েছে 

প্রকাশ | ১০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২১:০২ | আপডেট: ১০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২৩:৪৪

আরটিভি নিউজ
ওয়াহিদা খানম, ফাইল ছবি।

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াহিদা খানমের মুখের সেলাই আজ বৃহস্পতিবার (১০ সেপ্টেম্বর) খোলা হয়েছে। 

আগামী শনিবার তার মাথার সেলাইও খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন চিকিৎসকরা। এছাড়া তার শরীরের ডান পাশের কিছুটা উন্নতি হয়েছে এবং তিনি হাতের আঙ্গুল নাড়ানোর চেষ্টাও করেছেন বলে জানান চিকিৎসক। 

এদিন বিকেলে রাজধানীর ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস ও হাসপাতালের অধ্যাপক ডা. জাহিদ হোসেন এসব তথ্য জানান। তিনি বলেন, ইউএনওর অবস্থার উন্নতি হচ্ছে। আগামী শনিবার মাথার সেলাই খোলার পর মেডিকেল বোর্ড মিটিংয়ে বসে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

গেল ৩ সেপ্টেম্বর রাতে ছয় সদস্যের চিকিৎসক দল প্রায় দুই ঘণ্টার চেষ্টায় ইউএনও ওয়াহিদার মাথায় জটিল অস্ত্রোপচার সম্পন্ন করেন। অস্ত্রোপচার শেষেই তাকে ৭২ ঘণ্টার পর্যবেক্ষণে রেখেছেন তারা। তাৎক্ষণিকভাবে তার সেরে ওঠার বিষয়ে আশাবাদী হলেও তিনি শঙ্কামুক্ত নন বলে জানানও হয়।

উল্লেখ্য, গেল ২ সেপ্টেম্বর দিনগত রাতে ইউএনও ওয়াহিদার সরকারি বাসভবনের ভেন্টিলেটর ভেঙে বাসায় ঢুকে ওয়াহিদা ও তার বাবার ওপর হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। এতে ইউএনও ও তার বাবাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আহত করা হয়।

পরে ইউএনওকে প্রথমে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (রমেক) নিয়ে ভর্তি করা হয়। এরপর তার শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য হেলিকপ্টারে করে তাকে ঢাকায় আনা হয়। তিনি এখন রাজধানীর ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্স হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

আরও পড়ুন: যে কারণে ঝিনাইদহে আত্মহত্যার হার বেশি

এসএ/এম