বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ২

প্রকাশ | ১০ আগস্ট ২০২০, ১৮:৪৪ | আপডেট: ১০ আগস্ট ২০২০, ১৯:৫২

সিলেট প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ
সিলেট

সিলেটের জকিগঞ্জের আটগ্রাম এলাকার আশ্রয়ণ প্রকল্প থেকে এক কিশোরীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তুলে নিয়ে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার সাজ্জাদ মিয়া ও সজিব আহমদ নামে দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে জকিগঞ্জ থানা পুলিশ। 

জকিগঞ্জ থানা পুলিশ জানায়, গত ৮ আগস্ট নিখোঁজ কিশোরীর মায়ের জিডির ভিত্তিতে তদন্তে নামে পুলিশ। মোবাইল ফোন নম্বরের সূত্র ধরে প্রযুক্তির ব্যাবহার করে সিলেট নগরীর হুমায়ুন রশিদ চত্বর এলাকা থেকে সজিবকে গ্রেপ্তার করা হয় এবং মেয়েকে উদ্ধার করা হয়। পরে সজিবের দেয়া তথ্যর ভিত্তিতে সিলেটের দক্ষিণ সুরমা এলাকা থেকে সাজ্জাদকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারের পর আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, ১৭ বছর বয়সী ওই কিশোরীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে সাজ্জাদ মিয়া এবং তাকে সবক্ষেত্রে সহযোগিতা করে তার খালাতো ভাই সজিব। এরপর গত ৭ তারিখে মোবাইল ফোনে কথা বলে ঘর থেকে বের করে আটগ্রাম এলাকার আশ্রয়ণ প্রকল্পের সামনে থেকে একটি সিএনজির মাধ্যমে কিশোরীকে জোর করে অপহরণ করে তুলে নিয়ে সিলেট নগরীর আখালিয়া এলাকার আসামী সাজ্জাদের ফুপুর একটি ভাড়াটিয়ার বাসায় রেখে মেয়েটিকে সারারাত ধর্ষণ করে। 

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মো. শাহিনুর রহমান আরটিভি নিউজকে জানান, নিখোঁজ ব্যক্তির মা থানায় জিডি করার পর আমরা প্রযুক্তির ব্যাবহার করে আসামী সজিবকে গ্রেপ্তার করি ও মেয়েটিকে উদ্ধার করি। এবিষয়ে জকিগঞ্জ থানায় ওই কিশোরী বাদী হয়ে মামলা করেন। আসামীদের জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

সিলেট জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুদিপ্ত রায় আরটিভি নিউজকে জানান, নারী শিশু নির্যাতন ও যৌন হয়রানি আইনের দৃষ্টিতে খুব ভয়াবহ অপরাধ। উক্ত ঘটনায় আমরা ২ জনকে গ্রেপ্তার করেছি। এই ঘটনার সঙ্গে আরও কেউ জড়িত থাকলে তাদেরও গ্রেপ্তার করা হবে।

এসএস