logo
  • ঢাকা রবিবার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ৩ ভাদ্র ১৪২৬

সেই ম্যাজিস্ট্রেট শাহরিয়ারকে বদলির আদেশ বাতিল

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ০৪ জুন ২০১৯, ১২:১৩ | আপডেট : ০৪ জুন ২০১৯, ১৭:৫৭
পারসোনার ধানমন্ডি ও আড়ংয়ের উত্তরা শাখাকে জরিমানা করা মঞ্জুর মোহাম্মদ শাহরিয়ারের বদলির আদেশ আজ মঙ্গলবার সকালে প্রত্যাহার করা হয়েছে। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মুহাম্মদ আব্দুল লতিফের সই করা প্রেষণ-১ অধিশাখার এক প্রজ্ঞাপনে এ বদলির আদেশ দেয়া হয়েছিল।

bestelectronics
এ নিয়ে ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনা হয়। তার ২৪ ঘণ্টা পার না হতেই আজ মঙ্গলবার সেই বদলি আদেশ বাতিল করা হয়েছে। তাকে স্বপদে বহালের নির্দেশ দিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন দোদুল মঙ্গলবার সকালে আরটিভিকে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ম্যাজিস্ট্রেট শাহরিয়ারের বদলি আদেশ প্রত্যাহার করা হয়েছে।এটা নিয়মিত বদলি ছিল। আড়ং বা পারসোনায় জরিমানার সঙ্গে এর কোনো সম্পর্ক নেই। নিয়মিত বদলির অংশ হিসেবে গত মাসের ৩ তারিখেই তাকে বদলি করা হয়েছে। কিন্তু এখন যেহেতু জনগণ তাকে বর্তমানে জায়গায় চাচ্ছে। এজন্য তাকে স্বপদে বহাল রাখা হলো।বদলির আদেশ প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে।

গতকাল সোমবার ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক পদ থেকে বদলি করে তাকে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর, খুলনা জোনের এস্টেট ও আইন কর্মকর্তা হিসেবে যোগ দিতে বলা হয়েছিল।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, উপসচিব পদমর্যাদায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের বিভাগীয় কার্যালয় ঢাকার উপ-পরিচালক মঞ্জুর মোহাম্মদ শাহরিয়ারকে এস্টেট ও আইন কর্মকর্তা হিসেবে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের, সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর, খুলনা জোনে ন্যস্ত করা হলো। আগামী ১৩ ‍জুন তাকে বদলি করা কর্মস্থলে যোগ দেয়ার জন্য অনুরোধ করা যেতে পারে। নতুন কর্মস্থলে যোগ না দিলে ১৩ জুন বিকেলে তিনি বর্তমান কর্মস্থল থেকে তাৎক্ষণিকভাবে অবমুক্ত (স্ট্যান্ড রিলিজ) বলে গণ্য হবেন।

এর আগে গতকাল সোমবার দুপুরে এক ক্রেতার অভিযোগের ভিত্তিতে আড়ংয়ের উত্তরা শাখায় অভিযানে নেতৃত্ব দেন মঞ্জুর শাহরিয়ার।

মোহাম্মদ ইব্রাহিম নামে ওই ক্রেতার অভিযোগ, গত ২৫ মে তিনি আড়ংয়ের উত্তরা শাখা থেকে ৭১৩ টাকায় একটি পাঞ্জাবি কিনেছিলেন। ছয় দিন পর ৩১ মে ওই একই পাঞ্জাবি কিনতে গিয়ে দেখেন, সেটির দাম ১৩০৫ টাকা। বেশি দামেই পাঞ্জাবিটি কিনে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরে অভিযোগ করেন তিনি। তার অভিযোগের ভিত্তিতে আড়ংয়ে অভিযান চালিয়ে সাড়ে চার লাখ টাকা জরিমানা করেন।

অভিযান প্রসঙ্গে মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার বলেন, ‘আড়ং একটি ব্র্যান্ড। দেশি ভালো পণ্য বিক্রি করে বলে তাদের প্রতি ক্রেতাদের রয়েছে আস্থা ও সরল বিশ্বাস। এটি পুঁজি করে কৌশলে ক্রেতাদের ঠকাচ্ছে, যা ভোক্তা আইনপরিপন্থী। এ অপরাধে তাদের সাড়ে চার লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। একই সঙ্গে প্রতিষ্ঠানটি সাময়িক বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। দাম বাড়ানোর যৌক্তিক কারণ ব্যাখ্যা করতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ অধিদপ্তরে ডাকা হয়েছে।’

অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. আব্দুল জব্বার মণ্ডল জানান, ‘পাঞ্জাবির দাম বেশি নেয়ার বিষয়টি স্বীকার করায় রাত পৌনে ৯টার দিকে উত্তরার আড়ং শোরুম খুলে দেয়া হয়েছে। আড়ং কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ভবিষ্যতে ভোক্তা অধিকার ক্ষুণ্ন হয় এমন কাজ তারা আর করবে না।’

এর আগে গত বৃহস্পতিবার (৩০ মে) আমদানিকারকের স্টিকার ছাড়াই নামিদামি ব্র্যান্ডের বিদেশি কসমেটিকস ব্যবহার করায় ধানমন্ডির পারসোনা বিউটি পার্লারকে ৬ লাখ ও আলভিরাকে ৩ লাখ টাকা জরিমানা করে।

পি

bestelectronics bestelectronics
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়