logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

ঘূর্ণিঝড় বুলবুল

বাগেরহাটে ঘরবাড়ি-ফসলের ব্যাপক ক্ষতি, নিহত ২

বাগেরহাট প্রতিনিধি
|  ১১ নভেম্বর ২০১৯, ০৯:১০ | আপডেট : ১১ নভেম্বর ২০১৯, ১০:২১
বাগেরহাট ঘরবাড়ি-ফসল ক্ষতি নিহত ২
ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে বাগেরহাটে ঘরবাড়ি-গাছপালা ও ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। রোববার সকালে বাগেরহাটের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া বুলবুলের প্রভাবে গাছচাপায় ২ জন নিহত হয়েছে। এসময় আহত হয়েছেন অন্তত আরও তিন জন।

নিহতরা হলেন, রামপাল উপজেলার সোনাতুনিয়া গ্রামের বাবুল শেখের মেয়ে সামিয়া খাতুন (১৫) এবং ফকিরহাট উপজেলার বেতাগা ইউনিয়নের চাকুলী গ্রামের মাসুম শেখের স্ত্রী কোহিনূর বেগম (২৫)। এর মধ্যে সামিয়া খাতুন ঘরের উপর গাছ পড়ে ঘটনাস্থলে এবং কোহিনূর বেগম এক ঘর থেকে অন্য ঘরে যাওয়ার সময় গাছের ডাল ভেঙে পড়ে আহত হলে হাসপাতালে নেয়ার পর তিনি মারা যান।

আহতরা হলেন- মোংলা উপজেলার পূর্ব চিলা গ্রামের অমূল্য মণ্ডলের স্ত্রী রেনুকা মণ্ডল(৫৫), রামপাল উপজেলার সোনাতুনিয়া গ্রামের আবু বকরের ছেলে শহিদুল ইসলাম ওরফে রাজু এবং তার মা সেলিনা বেগম (৫৫)।

বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মোঃ মামুনুর রশীদ ও পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায় আরটিভি অনলাইনকে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে বাগেরহাটের ৯টি উপজেলায় ৪৪ হাজার ঘর-বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

এছাড়া বাগেরহাট পল্লীবিদ্যুতের ৫ শতাধিক পোল (খুঁটি) ভেঙে পড়েছে, তার ছিঁড়ে গেছে ৫৭৫টি স্থানে। বাগেরহাট পল্লীবিদ্যুৎ সমিতির মহাব্যবস্থাপক জাকির হোসেন এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, ঘূর্ণিঝড়ে পল্লীবিদ্যুতের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। কতদিনে এটি স্বাভাবিক হবে তা তিনি জানাতে পারেননি।

এছাড়া পিডিপিরও বিভিন্ন স্থানে তার ছিঁড়ে পড়েছে। বাগেরহাট জেলা একপ্রকার বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়েছে। মোবাইল ফোন অপারেটরগুলোর নেটওয়ার্ক পাওয়া যাচ্ছে না। ফলে প্রত্যন্ত অঞ্চল একপ্রকার বিচ্ছিন্ন রয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে বাগেরহাটের ৯টি উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় কাচা ঘরবাড়ির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। হাজার হাজার গাছ উপড়ে ও ভেঙে পড়েছে। প্রবল বর্ষণে বাগেরহাটের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। এতে ভেসে গেছে পুকুর ও মাছের ঘের। কৃষি বিভাগ জানায়, ৫ হাজার হেক্টর জমির আমন ধান ও শীতকালীন সবজির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। রোববার বিকেল থেকে সাইক্লোন শেল্টারে আশ্রয় নেয়া মানুষ বাড়িতে ফিরে গেছে। সোমবার সকাল থেকে মোংলা বন্দরে পণ্য ওঠানামা করবে বলে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ জানায়।

জেলা প্রশাসক মোঃ মামুনুর রশীদ জানান, প্রলয়ংকারী ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে ঘরবাড়ি-গাছপালা ও ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। জেলার ৪৪ হাজার ৫৬৩টি ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আহত ও নিহতদের পরিবারে মাঝে সরকারি সহায়তার অর্থ বিতরণ করা হয়েছে।

পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • পরিবেশ ও জীববৈচিত্র এর সর্বশেষ
  • পরিবেশ ও জীববৈচিত্র এর পাঠক প্রিয়