logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৫ ফাল্গুন ১৪২৬

আইসিজে’র রায় বাস্তবায়নের দায়িত্ব জাতিসংঘের: পররাষ্ট্র সচিব

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২৪ জানুয়ারি ২০২০, ০৯:০৪ | আপডেট : ২৪ জানুয়ারি ২০২০, ১১:২৪
আইসিজে’র রায় বাস্তাবয়নের দায়িত্ব জাতিসংঘের  পররাষ্ট্র সচিব
ফাইল ছবি
আন্তর্জাতিক ন্যায়বিচার আদালতের রায়ের ফলে মিয়ানমার অবশ্যই চাপে পড়বে, তবে কীভাবে সেটা প্রয়োগ হবে তা আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জ। আইসিজের আদেশ এখন বাস্তবায়ন করার দায়িত্ব এখন জাতিসংঘের। বললেন পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন।

বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) ঢাকায় একটি আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে তিনি এই মন্তব্য করেন।

রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর সুরক্ষা নিশ্চিত করতে আন্তর্জাতিক ন্যায়বিচার আদালত (আইসিজে) মিয়ানমারকে চারটি অন্তর্বর্তী আদেশ দিয়েছেন। এগুলো হলো মিয়ানমার হত্যাযজ্ঞের সাক্ষ্য-প্রমাণ নষ্ট করতে পারবে না, মিয়ানমারকে জোনোসাইড কনভেনশন মেনে চলতে হবে, রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে গণহত্যা তৎপরতা চালানো যাবে না এবং ৪ মাসের মধ্যে আদেশ বাস্তবায়নের অগ্রগতি জানাতে হবে।

মাসুদ বিন মোমেন বলেন, আমরা এখনও বিশ্বাস করি রোহিঙ্গা সংকট কেটে যাবে। আইসিজের অন্তর্বর্তী আদেশ যেন মিয়ানমার পালন করে তা নিশ্চিত করার দায়িত্ব জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের ওপর বর্তায়। এই দায়িত্ব পালনে জাতিসংঘের পাশাপাশি বাংলাদেশও কাজ করবে।

তিনি বলেন, এখন বাংলাদেশের প্রচুর কাজ আছে। এ রুলিংয়ের ইমপ্যাক্ট আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তুলে ধরতে হবে। চীন, জাপান, ভারতের সঙ্গে যখন আমরা বসবো, তখন বলা যাবে মিয়ানমার গণহত্যা করেছে। যেহেতু তারা মিয়ানমারের সঙ্গে রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আইসিজের এ মামলা করার অনেক আগে থেকে বাংলাদেশ প্রস্তুতি প্রক্রিয়ায় জড়িত ছিল। জেনেভা কনভেনশন মেনে বিচার চাওয়ায় আমরা আইসিজে ও এর সদস্যদের শুভেচ্ছা জানাই। এটি বিশ্বের সব গণহত্যার ভুক্তভোগীর জন্য একটি জয়।

পররাষ্ট্র সচিব বলেন, গাম্বিয়া কথায় অনেক কিছুই উঠে এসেছে যা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় তথা জাতিসংঘ ও কফি আনান কমিশনে আগেই বলা হয়েছে। আমরা গাম্বিয়ার এ পদক্ষেপের প্রশংসা করি। আমরা বিশ্বাস করি, গাম্বিয়ার এ পদক্ষেপের ফলে বাংলাদেশে আশ্রয় পাওয়া রোহিঙ্গাদের আস্থা ফিরে আসবে এবং তারা নিজ দেশে ফিরে যাবে।

এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • জাতীয় এর সর্বশেষ
  • জাতীয় এর পাঠক প্রিয়